৪০তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি বিজ্ঞান (রিভিশন বিগত সাল)

৪০তম বিসিএস প্রিলি 
প্রস্তুতি

#বিজ্ঞান (রিভিশন বিগত সাল)
-------------------------------
১। চাঁদে বস্তুর ভর পৃথিবী হতে বেশি না কম? (৩৭ তম প্রিলি) [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ কম। চাঁদে বস্তুর ভর পৃথিবীর ভরের এক ষষ্ঠমাংশ অর্থা ৬ ভাগের ১ ভাগ।
২। 'বিগ ব্যাং থিওরী' কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান] [৩১ তম প্রিলিমিনারি] 
উত্তরঃ এটা হলো মহাবিশ্ব সৃষ্টির সময়ের মহাবিস্ফোরণ। যখন একই সাথে স্থান, সময় ও পদার্থ সৃষ্টি হয়েছে। জর্জ লেমিটেয়ার এই বিগ ব্যাং থিওরীর প্রবক্তা। 
৩। কেমোথেরাপি কী ? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান] 
উত্তরঃ রাসায়নিক পদার্থের প্রয়োগের মাধ্যমে ক্যান্সারের চিকিৎসা পদ্ধতিকে কেমোথেরাপি বলে। এর জনক হলেন পল এহর্লিক। 
৪। নবায়নযোগ্য শক্তি বলতে কী বুঝায় ? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ যে শক্তি একবার শেষ হয়ে গেলেও চার্জের মাধ্যমে পুনরায় নবশক্তিতে পরিণত করা যায় তাকে নবায়নযোগ্য শক্তি বলে। যেমন: স্টোরেজ ব্যাটারি ও পারমুটিট।
৫। সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ সমুদ্রে ঘূর্ণিঝড়ের সঙ্গে বাতাস সমুদ্রের উপর বল প্রয়োগ করে প্রচণ্ড ঢেউয়ের সৃষ্টি করে যাকে সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস বলে। 
৬। এইডস (AIDS) কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ AIDS এর পূর্ণরূপ Acquired Immune Deficiency Syndrome. এটি একটি মারাত্মক সংক্রামক ব্যাধি। যা ১৯৮১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে পাওয়া যায়। 
৭। নিউট্রন তারকা কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ অত্যন্ত ঘনীভূত নিউট্রন কণিকা দ্বারা সৃষ্ট ক্ষুদ্রাকৃতির তারকা হল নিউট্রন তারকা। 
৮। ক্লোরোফিল কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ উদ্ভিদের ক্লোরোপ্লাস্টিডে অবস্থিত সবুজ বর্ণের রঞ্জক হলো ক্লোরোফিল। 
৯। ওজোন কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ওজোন অক্সিজেনের একটি রূপভেদ। এর সংকেত O₃. ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৬৫ মাইল উপরে বায়ুমণ্ডলের চতুর্থ স্থরকে ওজোন স্থর বলে। 
১০। আয়ন স্থর কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ মেসোমণ্ডলের ওপরের স্থর আয়নস্থর নামে পরিচিত। এর ব্যাপ্তি ভূ-পৃষ্ঠের ৮০ কিলোমিটার উর্ধ্ব হতে ৬৪৪ কিলোমিটার পর্য্ন্ত ।
১১। সৌরশক্তি কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ সূর্য্ থেকে প্রাপ্ত শক্তিই সৌর শক্তি। সূর্য্ হতে ফিউশন প্রক্রিয়ায় এই শক্তি উৎপন্ন হয়। 
১২। এসিড বৃষ্টি কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ শিল্প-কারখানা অঞ্চলে বৃষ্টির পানির সাথে যে এসিডিক পলি মাটিতে পতিত হয় তাই এসিড বৃষ্টি।
১৩। অতিরিক্ত সাবান ব্যবহারে পুকুরের পানিতে কী ক্ষতি হয়? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ সাবানে থাকে সোডিয়াম স্টিয়ারেট। যা পুকুরের ইকোসিস্টেম নষ্ট করে খাদ্যচক্র ক্ষতিগ্রস্ত করে। 
১৪। সুষম খাদ্য কাকে বলে? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ খাদ্যের উপাদানসমূহের নির্দিষ্ট অনুপাতের সংমিশ্রণে যে খাদ্য প্রস্তুত করা হয় তাকে সুষম খাদ্য বলে। সুষম খাদ্যের উপাদান ৬ টি।
১৫। কোলেস্টেরল কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ কোলেস্টেরল অ্যালকোহল জাতীয় এক ধরনের স্টেরয়েড। শরীরের চর্বি হতেই কোলেস্টেরলের উৎপত্তি। 
১৬। কৃত্রিম বস্তু দ্বারা তৈরি ব্যাগ পরিবেশে কী দূষণ ঘটায়? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ কৃত্রিম বস্তু বা পলিথিনতাতীয় যৌগের তৈরি ব্যাগ পানিতে বা মাটিতে পচে না। ফলে পানি নিষ্কাশন ও চাষাবাদে ব্যাঘাত ঘটায়।
১৭। আকাশের রং নীল কেন? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ যে আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য সবচেয়ে কম সে আলোর বিক্ষেপণ বেশি। এজন্য কম তরঙ্গদৈর্ঘ্য বিশিষ্ট বেগুনী, নীল ও আসমানী আলোর বিক্ষেপণ অধিক হয়। নীল আলোর বিচ্যুতি লাল ও বেগুনী আলোর বিচ্যুতির মাঝামাঝি বলে নীল আলোর প্রাচুর্য্ ঘটে। ফলে আকাশ নীল দেখায়। 
১৮। ফ্যাক্স কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ফ্যাক্স একটি ইলেকট্রনিক যন্ত্র যা দ্বারা লিখিত বক্তব্য একস্থান হতে অন্যস্থানে পৌঁছানো যায়। 
১৯। সিসমোস্কোপ কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ভূমিকম্পের উৎস, ভূমিকম্পের তীব্রতা ও ভূমিকম্পের শক্তিমাত্রা নির্ণয়ের যন্ত্রকে সিসমোস্কোপ বলে।
২০। গ্রহ জ্বল জ্বল এবং নক্ষত্র মিটমিট করে জ্বলে কেন? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ গ্রহের নিজের কোন আলো নেই। নক্ষত্রের আলো গ্রহের উপর প্রতিফলিত হয় বলে গ্রহকে জ্বল জ্বল করতে দেখায়। অপরদিকে নক্ষত্রের নিজস্ব আলো রযেছে। অনেক দূর থেকে দেখা যায় বলে নক্ষত্রের আলোকে মিট মিট করতে দেখায়। 
২১। চোখের হ্রস্বদৃষ্টি ও দীর্ঘদৃষ্টি ক? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ যে চোখ দিয়ে দূরের জিনিস স্পষ্ট দেখতে পায় না কিন্তু কাছের জিনিস স্পষ্ট দেখতে পায় তাকে হ্রস্বদৃষ্টি বলে। অপরদিকে যে চোখ দিয়ে কাছের জিনিস স্পষ্ট দেখতে পায় না কিন্তু দূরের জিনিস দেখতে পায় তাকে দীর্ঘদৃষ্টি বলে। 
২২। ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ একটি আলোকযন্ত্র যা দিয়ে অতি ক্ষুদ্র জীবাণু, ভাইরাস টিস্যু ও ব্যাকটেরিয়া পর্য্বেক্ষণ করা হয়। 
২৩। শূন্য স্থানে আলোর বেগ কত? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ প্রতি সেকেন্ডে 3 × 108 মিটার = 30,0000000 মিটার।
২৪। সূর্য্ হতে পৃথিবীতে আলো আসতে কত সময় লাগে? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান] 
উত্তরঃ ৫০০ সেকেন্ড বা ৮ মিনিট ২০ সেকেন্ড।
২৫। কসমিক রে কী বা মহাজাগতিক রশ্মি কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ মহাশূন্য থেকে পৃথিবীর চারদিকে নানা ধরনের আলো ও কণা আলোর বেগের কাছাকাছি বেগে আঘাত হানে। এদের কসমিক রে বলে।