Tuesday, December 11, 2018

মাথাপিছু আয় এবং জিডিপির মধ্যে পার্থক্য কি?

মাথা পিছু আয় : মাথা পিছু আয় হলো কোনো নির্দিষ্ট সময়ে কোনো দেশের নাগরিকদের গড় আয়। মাথাপিছু আয় দুইটি পৃথক মান দ্বারা নির্ধারিত হয় । 

  1. মোট জাতীয় আয় 
  2. মোট জনসংখ্যা 
কোনো নির্দিষ্ট সময়ে কোনো দেশের মোট জাতীয় আয়কে (GNI) সে দেশের মোট জনসংখ্যা দ্বারা ভাগ করলে মাথাপিছু জাতীয় আয় বা মাথাপিছু আয় পাওয়া যায় ।
অর্থাৎ মাথাপিছু আয় = মোট জাতীয় আয় ÷ মোট জনসংখ্যা । 
যেমন ধরুন কোনো দেশের মোট আয় 700 কোটি মার্কিন ডলার এবং মোট জনসংখ্যা 14 কোটি । 
অতএব ঐ দেশের মাথাপিছু আয় = 700 কোটি মার্কিন ডলার ÷ 14 কোটি 
= 500 মার্কিন ডলার 
আশা করি মাথা পিছু আয় বুঝতে পেরেছেন । এখন আমরা জিডিপি(GDP=GROSS DOMESTIC PRODUCT) এ যাই 
জিডিপি(Gross Domestic Product): কোনো নির্দিষ্ট সময়ে, সাধারণত এক বছরে কোনো দেশের জনগণ মোট যে পরিমাণ চূড়ান্ত দ্রব্য ও সেবা উৎপাদন করে তার অর্থমূল্যকে মোট জাতীয় উৎপাদন বলে । 
জ্ঞতব্য : জাতীয় মোট উৎপাদনের মধ্যে দেশের অভ্যন্তরে বসবাসকারী ও কর্মরত বিদেশী ব্যক্তি ও সংস্থার উৎপাদন / আয় জিডিপির অন্তর্গত হবে  না তবে বিদেশে অবস্থানরত ও বসবাসকারী দেশি নাগরিকের ,সংস্থার ও প্রতিষ্ঠানের আয় / উৎপাদন এর অন্তর্গত হবে । আশা করি বুঝাতে পেরেছি । 

যদি এই দুটো জিনিস আপনি বুঝতে পারেন তাহলে মধ্যকার পার্থক্য করতে পারবেন ধন্যবাদ 
Share:

Monday, December 3, 2018

SCC Exam suggestions Accounting হিসাব বিজ্ঞান

#SSC_SPECIAL 

বিষয় : হিসাব বিজ্ঞান

সময়: ১:৩০ ঘন্টা    পূর্ণমান : ৩০+২০=৫০
১। ইরফান ট্রের্ডাস জানুয়ারি ২০১৮ এ সোহেল ট্রের্ডাসের নিকট নি¤েœাক্ত পণ্য বিক্রয় করেন। 
জানু- ১ নগদে ৬০ টাকা দরে ১২০ কেজি চিনি। 
জানু- ১০ ৫৫ টাকা দরে ৬০ কেজি চিনি। 
জানু- ২০  ১২০ টাকা দরে ৪০ কেজি মসুর ডাল। 
ইরফান ট্রের্ডাস মোট বিকয়ের উপর ৭% কারবারি বাট্টা মঞ্জুর করেন। 
ক) মোট বিক্রয়েল পরিমাণ নির্ণয় কর।  ২
খ) জানুয়ারি ১ তারিখের ভিত্তিতে একটি ক্যশমেমো প্রস্তুত কর।   ৪
গ) জানুয়ারি ২০ তারিখের লেনদেন হতে চালান প্রস্তুত কর।     ৪

২। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে সজল ট্রেডাসের ব্যবসায়ে নি¤œলিখিত ঘটনাগুলো সংঘটিত হয়েছে। 
ডিসেম্বর- ১  রুপালী ব্যাংকে ৫০০ টাকা দিয়ে একটি হিসাব খোলা হল। 
ডিসেম্বর- ৫  ধারে পণ্য ক্রয় ১০০০ টাকা। 
ডিসেম্বর- ১০ নগদে পণ্য বিক্রয় ২০০০ টাকা। 
ডিসেম্বর- ১৪ ব্যাংক হতে ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ঋণ গ্রহণ ১০০০ টাকা। 
ডিসেম্বর- ২৫ নগদে আসবাবপত্র ক্রয় ৫০০ টাকা। 
ক) ব্যবসায়িক লেনদেন নয় এমন ঘটনাসমূহ চিহ্নিত করে মোট পরিমাণ নির্ণয় কর।  ২
খ) ঘটনাসমূহ হতে লেনদেন চিহ্নিত করে সমীকরণ পদ্ধতিতে তার কারণ ব্যাখ্যা কর।          ৪
গ) বিবরণী ছকে হিসাব সমীকরণের ওপর লেনদেনর প্রভাব দেখাও।  ৪

৩। ২০১৭ সালের ৩১শে ডিসেম্বর তারিখের সজল ট্রের্ডাসের সম্পদ ও দেনার পরিমাণ ছিল -
হাতে নগদ ৭০,০০০/- আসবাবপত্র ২৫,০০০/-  পাওনা ৫০,০০০/-  অগ্রিম বেতন  ৫০০/-   ব্যাংকজমা ৩০,০০০/-  মজুদ পণ্য ৪০,০০০/-  প্রাপ্যবিল ২০,০০০/-  দেনা ২৫,০০০/-  প্রদেয় বিল ৪০,০০০/-  বছরের মাঝামাঝি সময়ে অতিরিক্ত মূলধন হিসাব ৫০,০০০ টাকা সরবরাহ করেন। নিজের প্রয়োজনে প্রতিমাসে ২০০০ টাকা পণ্য এবং নগদে ১০,০০০ টাকা করে উত্তোলন করেন। বছরের শুরুতে তিনি নগদ উদ্বৃত ২৫,০০০/-আসবাবপত্র ২০,০০০/- পুস্তক ঋণ-৩৫,০০০ ক্রয় খতিয়অনের জের ২০,০০০/- বকেয়া মজুরি ৫,০০০/- টাকা এবং ব্যাংক জমাতিরিক্ত ২৪,০০০ টাকা নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। 
ক) ০১/০১/২০১৭ তরিখের মূলধন নির্নয় কর।  ২
খ) সমাপনী মূলধনের পরিমাণ নির্নয় কর।  ৪
গ) সজল ট্রেডাসের লাভ/ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় কর।  ৪

৪। রাহাত ষ্টোর এর ২০১৮ সালের মে মাসের কতিপয় লেনদেন নি¤œরূপ। 
মে- ১  ধারে পণ্য ক্রয় ৫০,০০০/- 
মে- ৫ দোকানের সাজসজ্জার পরিবর্তন ব্যয় ১০,০০০/- 
মে- ১২  পণ্য পরিবহন ব্যয় ২,০০০/-
মে- ১৩ পণ্য বিক্রয় ১৮,০০০/-
মে-২১ বাট্রা প্রদান ৭০০ /-
মে-২৫ ধারে পণ্য বিক্রয় ২২,০০০/-
মে-২৭ দোকানের জন্য ফ্রিজ ক্রয় ৪৫,০০০/- 
মে -২৮ বিদ্যুৎ বিল পরিশেঅধ ১,০০০/-
মে-২৯ কমিশন প্রাপ্তি ৩,০০০/- 
মে-৩০ লভ্যাংশ প্রাপ্তি ১,০০০/-
ক) উপযুক্ত তথ্যদি হতে মূলদন জাতীয় লেনদেনের মোট পরিমাণ নির্ণয় কর।  ২
খ) মে মাসের মোট মুনাফা জাতীয় ব্যয়ের পরিমান নির্ণয় কর।  ৪
গ) মে মাসের মোট মুনাফা জাতীয় আয়ের পরিমাণ নির্ণয় কর।  ৪

বহুনির্বাচনী-১০
১। মূলধন জাতীয় ব্যয় কোনটি? 
    ক) সুদ প্রদান      খ) ভাড়া প্রদান      গ) মেশিন ক্রয়      ঘ) পণ্য ক্রয় 
২। কোনটি মুনাফা জাতীয় লেনদেন? 
ক) আসবাবপত্র ক্রয়  খ) পণ্য ক্রয়  গ) প্রাঙ্গন উন্নয়ন  ঘ) যন্ত্রপাতি ক্রয় 
৩। হিসাব তথ্যের ব্যবহারকারী পক্ষ কয়টি? 
    ক) ১টি     খ) ২টি      গ) ৩টি      ঘ) ৪টি  
৪। হিসাব বিজ্ঞানের অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য কোনটি? 
    ক) আর্থিক ফলাফল ও আর্থিক অবস্থা নির্নয়      খ) ব্যয় নিয়ন্ত্রন করা   
     গ) জালিয়াতি ও প্রতারণা রোধ করা             ঘ) আর্থিক বিবরনীর তুলনা মূলক বিশ্লেষণ করা ।
৫। কোনটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান?
    ক) স্কুল  খ) লাইব্রেরি  গ) ঔষুধের দোকান  ঘ) খাওয়ার হোটেল 
৬। হিসাব বিজ্ঞানের জনক কে? 
    ক) ম্যাকগ্রোথ   খ) এ ডব্লিউ জনসন  গ) লুকা প্যঅসিওনি  ঘ) ক্রান্সি ডব্লিউ প্রিকাল 
৭। ঘটনা কত প্রকার? 
    ক) ৩      খ) ২     গ) ৪      ঘ) ৫  
৮। হিসাবের উৎস কোনটি?
    ক) লেনদেন      খ) জাবেদা      গ) খতিয়ান      ঘ) রেওয়ামিল 
৯। লেনদেনর সুবিধা গ্রহণ কারী পক্ষকে কি বলে? 
    ক) দাতা      খ) গ্রহীতা      গ) দেনাদার      ঘ) পাওনাদার 
১০। প্রতিটি লেনদেনে কমপক্ষে কয়টি হিসাব থাকে?
    ক) ১টি      খ) ২টি     গ) ৩টি      ঘ) ৪টি
Share:

সৃজনশীল প্রশ্নে কিভাবে ১০ এ ১০ পাওয়া সম্ভব

#সৃজনশীল_প্রশ্নে_কিভাবে_১০_এ_১০_পাওয়া_সম্ভব:

আমরা এখনো অনেকেই জানিনা যে সৃজনশীল কিভাবে লিখলে ভাল মার্কস পাওয়া পসিবল।কিন্তু এখন তোমাদের পুরো ৭০ মার্কস-ই সৃজনশীলে।
তাই আমি মনে করি সৃজনশীল লিখার মেথডটা আমাদের জানা উচিত।
দেখা যায় ৭ টা সৃজনশীল আসার পর আমরা অনেকেই সবগুলো প্রশ্নের উত্তরও করতে পারিনা এর একমাত্র কারন হচ্ছে নিয়মের বাহিরে যেয়ে লিখা।
যার কারনে দেখা যায় প্রথমে অনেক বড় বড় করে লিখে লাস্টে এসে টাইম থাকেনা।
এজন্য প্রথমেই আমাদেরকে আগে টাইম ম্যানেজমেন্ট করে নিতে হবে।
আমরা প্রতিটা প্রশ্নের জন্য ২০ মিনিট করে নিবো।
যেমন আমি এভাবে লিখতাম:
(ক+খ) ৫ মিনিটে লিখা শেষ করতাম।
(গ) ৬ মিনিট এবং (ঘ) ৯ মিনিটে লিখতাম।

আর লিখার দৈর্ঘ্যটা হবে ক+খ এর জন্য প্রথম পেজ অর্থাৎ এক পৃষ্ঠা।
গ হবে এক পৃষ্ঠা+অপর পৃষ্ঠার ওয়ান ফোর্থ।
আর ঘ হবে ওই পৃষ্ঠা শেষ করা এবং বাকি আরেক পৃষ্ঠা।

মোটকথা একটা সৃজনশীল এর জন্য দুই পাতার বেশী কোনোভাবেই নেয়া যাবেনা।
অনেকে বলেছো যে ভাইয়া লাইন হিসেব করে লিখবো কিনা।

তাদেরকে বলবো নাহ্
লাইন হিসেব করে লিখার কোনোই দরকার নেই।
এমন কোনো টিচার নেই যার কিনা টাইম আছে তুমি কত লাইন লিখলা তা গুনে দেখার।
তাই বলবো লাইন হিসেব করে লিখার কোনোই দরকার নেই।

তোমরা কি জানো সৃজনশীলে ভাল মার্কস কিসের ওপর ডিপেন্ডেন্ট!!!
১.টিচার ফার্স্টেই দেখবেন তুমি সৃজনশীলের নিয়ম ফলো করে লিখেছো কিনা
২.তোমার লিখার কোয়ালিটি (সুন্দর হাতের লিখা)
৩.সবার শেষে যেটি দেখে তা হলো তুমি কতটুকু লিখলা(আমি বানিয়ে বেশী লিখার কথা বলিনি কিন্তু, প্রয়োজনীয় পরিমানে লিখার কথা বলছি)
যাক এতক্ষণ আমরা লিখার সাধারন নিয়মগুলো বললাম।
এবার আমরা আসি ক+খ+গ+গ আমরা কিভাবে লিখবো।
#ক।
আমরা জানি এটা হলো জ্ঞানমূলক প্রশ্ন।যাতে ১মার্কস । তুমি এখানে জাস্ট জ্ঞানটা লিখতে পারলেই টিচার তোমাকে ১ দিতে বাধ্য।সেটা যদি এক শব্দেও লিখতে পারো তাহলেও।অনেকে আছে ১ মার্কসের জন্য লিখে ২-৩ লাইন।নো নিড।
#খ:
এটা হচ্ছে অনুধাবনমূলক।মার্কস ২।এটা লিখার পার্ট হবে ২ টা।একটা পার্ট হলো জ্ঞানের আর অপর পার্টটা হলো অনুধাবনের।তুমি যদি এর একটা লিখতে পারো বাকিটা না হয় তাইলে তুমি ১ মার্কস পাবে। পুরো ২ পাবেনা।যার দুটি পার্ট ই হবে সেই শুধু পুরো ২ পাবে।এই পার্টদুটো কিন্তু আলাদা করে লিখতে হবে।
প্রশ্নে যেটা বলবে ওটার উত্তরটা জাস্ট ১ লাইনে লিখবা এটাই জ্ঞান। 
আর অনুধাবনে এসে তুমি যে
 জ্ঞানটা লিখলা এটাকে জাস্ট ৩-৪ লাইনে ব্যাখ্যা করবা। হয়ে গেলো দুটো পার্ট।ঠিকমতো লিখতে পারলে পেয়ে যাবে পুরো ২।
#গ:
এটা হচ্ছে প্রয়োগমূলক।মার্কস হলো ৩।লিখতেও হবে ৩ টা পার্টে।
এবার আসি কিভাবে লিখবে এই ৩ টা পার্ট।
প্রথম পার্টটা হবে জ্ঞান। অর্থাৎ গ এ যা বলবে ওটার উত্তরটা জাস্ট একবাক্যে লিখে দিবে।মনে করো প্রশ্নে থাকলো যে উদ্দীপকের রহিমের সাথে তোমার পাঠ্যবইয়ের গল্পটির কার সাথে/কোন দিক দিয়ে সাদৃশ্য আছে।এখানে জ্ঞানটা হবে উদ্দীপকের রহিমের সাথে গল্পের করিমের মিল রয়েছে। এটাই হলো জ্ঞান।
আচ্ছা এবার আসি গ এর অনুধাবন পার্টে এখানে এসে এমন কিছু কথা লিখবা যা তোমার গল্পেও নেই বা উদ্দীপকেও নেই বাট দুটোই রিলেটেড। এটা জাস্ট ২-৩ লাইনে লিখে ফেলবা।হয়ে গেল অনুধাবন।
লাস্টে হলো গ এর প্রয়োগ পার্ট। এ পার্টে এসে তুমি দেখাবা যে উদ্দীপকের করিমের সাথে তোমার গল্পের রহিমের কিভাবে মিল আছে।আগে লিখবা উদ্দীপকের কথা এরপর লিখবা গল্পের কথা।
ব্যাস্ হয়ে গেল গ।প্রতিটি পার্ট তুমি সুন্দরভাবে লিখতে পারলে পেয়ে যাবে পুরো ৩।
#ঘ:
এটা হলো উচ্চতর দক্ষতামূলক।যাতে মার্কস হলো ৪।পার্টও হবে ৪ টা।
প্রথম পার্টটা হলো জ্ঞানের।মানে প্রশ্নে যা থাকবে তা তুমি মেনে নিলেই হয়ে যাবে।মনে করো থাকলো যথার্থ কিনা/একমত কিনা।তুমি জাস্ট মেনে নিবে বা না মনে হলে মেনে নিবেনা।উত্তরটা  হবে উক্তিটি লিখে লিখবা যথার্থ /যথার্থ নয়।ব্যাস হয়ে গেলো জ্ঞান।
এবার আসি ঘ এর অনুধাবন।এখানে তুমি জাস্ট এমন কিছু কথা লিখবা যা উদ্দীপক/গল্পে/প্রশ্নে  থাকবে না বাট এই রিলেটেড হবে।হয়ে গেলো অনুধাবন।সাবধান গ এর অনুধাবনের কথাগুলো যেন রিপিট না হয়। 
এবার ঘ এর প্রয়োগ পার্ট। এ পার্টে এসে তুমি দেখাবা যে উদ্দীপকের  সাথে তোমার গল্পটা কিভাবে মিল বা যথার্থ বা তুমি কেন একমত।আগে লিখবা উদ্দীপকের কথা এরপর লিখবা গল্পের কথা।
আমি এখানে যথার্থ/একমতের কথা বললাম এর মানে কিন্তু এই না যে সব প্রশ্নেই এটা থাকবে।যেখানে যা থাকবে ওখানে ওভাবেই লিখবা।শেষ হলো প্রয়োগ পার্ট।
সবশেষ পার্টটা হলো উচ্চতর দক্ষতার।
তোমরা হয়তো ভাবছো এটা অনেক বড় হবে তাইনা!!😆
বাট নট😎
এটা হবে আরো সবার চেয়ে ছোট।মানে তুমি ৩ টা পার্টে কি লিখলা তার সমাপ্তি টানবা এখানে।যেমন বলবা যে অতএব বলতে পারি যে এই উক্তিটি যথার্থ।ব্যাস্ শেষ হয়ে গেলো।

এভাবে তুমি যদি সবগুলো প্রশ্ন পার্ট বাই পার্ট লিখতে পারো টিচার তোমাকে মার্কস দিতে বাধ্য।
তবে তোমরা মনে রাখবে প্রত্যেকটা প্রশ্নেরই জ্ঞানটা ঠিক লিখবে কারন টিচার খাতা দেখার সময় তোমার সবগুলো উত্তর পড়ে দেখবে না।সে দেখবে যে স্টুডেন্ট জ্ঞানটা ঠিকমতো লিখতে পারলো কিনা।যদি দেখে যে সঠিক লিখছে তাহলে ওটার ওপর ডিপেন্ড করেই মার্কস দিয়ে দিবে।
অনেকে বলতে পারো ভাই,এতো কিছু কি মেইনটেইন করে লিখা যায় নাকি!!বা অনেকে বলতে পারো প্রথমটা এরকম লিখলে লাস্টে আর নিয়ম মেনে লিখতে পারিনা।

আমি তোমাদেরকে বলবো,শোনো ভালো মার্কস পেতে হলে একটু কষ্ট তো করতেই হবে। নিয়ম মেনে লিখতে হবে। তাহলেই শুধু ভাল মার্কস পাবে তুমি।আর এখানেই ভাল এবং খারাপ স্টুডেন্টের পার্থ্ক্য।

সবাই ই তো গধবাঁধা লিখে যায়। তুমি একটু আলাদাভাবে লিখেই দেখোনা!!!
টিচার তোমাকে আলাদাভাবে জাজ করতে বাধ্য থাকবে ইনশাআল্লাহ।😊
তোমরা আজকে এই পোস্টটা শেয়ার করে রেখে দিবে।এবং প্রতিদিন রাতে পড়ার শেষে একটা করে এই নিয়মে সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর লিখবে।
প্রথম প্রথম দেখবা ভালো লাগছে না বা টাইম বেশি লাগছে।
বাট কয়েকদিন লিখতে লিখতে দেখবা তুমিও ভালোই লিখতে পারছো।
তখন দেখবা নিজের কাছেই ভালো লাগবে

আমার ছোট্ট একটা ফিলিংস শেয়ার করি তোমাদের অবশ্য গল্পও বলা যায়।
আমাদের সময় তো ৬ টা সৃজনশীল লিখতে হতো।পরীক্ষার সময় যখন লিখতাম তখন এদিক-ওদিক তাকানোর টাইম পেতাম না।

"একবার এক স্যার এসে আমার মাথায় হাত রেখে বলতেছিলো আস্তে লিখ মহিউদ্দিন।😁
আমার তখন একটুও মনে ছিলোনা যে স্যার বলছে
আমি ভাবছিলাম ফ্রেন্ড হয়ত😜🙊
বললাম,আরে ব্যাডা সর্😁😁😁🙊🙊🙊
পরে মাথা উঠিয়ে স্যারকে দেখে তো আমি শেষ😆😆😆
পরে স্যার হাসছিলেন আর বলছিলেন আরে সমস্যা নাই লিখ তুই।😊
(আমি স্বার্থপর ছিলাম না কিন্তু 😆
লিখা শেষে সবাইকে হেল্প করার ট্রাই করতাম😊😊✌✌✌)
৬ টা সৃজনশীল ছিলো তাতেই ১-২ টা লিখার পর মনে হতো, ধুর,আর লিখমুই না।😒
আবার মনে মনে ভাবতাম, না লিখতে হবে  তো,না লিখলে তো ভাল রেজাল্ট করা যাবে না।"
 যাইহোক,তোমাদেরকে এটা এজন্যই শেয়ার করলাম যে লিখার সময় যতটা সম্ভব টাইম কম অপচয় করবা সৃজনশীলের সময়।
আর কোনোভাবেই মাথা গরম করা যাবেনা😊😊😊
তোমরা যদি সৃজনশীলের নিয়মটা ফলো করে লিখো, উত্তর একটু খারাপ হলেও টিচার অনেকসময় মার্কস দিয়ে দিবেন।
আশাকরি তোমরা এখন থেকে আর কেউ সৃজনশীলে কম মার্কস পাবে না ইনশাআল্লাহ😊😊😊
Share:

কারকের মূল সমস্যা কোথায়? - Bangla Suggesstion Class

কারকের মূল সমস্যা কোথায়? 

কারক আমরা সেই প্রাইমারি থেকে পড়তেছি। কিছু কনফিউশন আছে , কর্মকারক <> করণকারক, অপাদান কারক <> অধিকরণ কারক, এগুলো ক্লিয়ার হয়ে গেলে কারক সহজে আনসার করা যাবে। চলো দেখে নেই উদাহরণসহ....

কারক কিভাবে চিনবে? বিস্তারিত আলোচনার আগে কয়েকটা প্রশ্ন দিচ্ছি যেগুলো দিয়ে প্রশ্ন করে কারক চেনা যায়-
#
 

কে, কারা? = কর্তৃকারক

কী, কাকে? = কর্মকারক

কী দিয়ে? =করণকারক

কাকে দান করা হল? = সম্প্রদান কারক

কি হতে বের হল? = অপাদান কারক

কোথায়, কখন, কী বিষয়ে? = অধিকরণ কারক

এবার উদাহরণসহ-

#কর্তৃকারক 
যে বিশেষ্য বা সর্বনাম পদ ক্রিয়া সম্পন্ন করে, তাকে  কর্তা বা কর্তৃকারক বলে।

ক্রিয়াকে 'কে/ কারা' দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া যায়, সেটিই কর্তৃকারক। (কর্মবাচ্য ও ভাববাচ্যের বাক্যে এই নিয়ম খাটবে না)

উদাহরণ-

গরু ঘাস খায়। (কে খায়?) : কর্তৃকারকে শূণ্য বিভক্তি

 #কর্ম কারক 
যাকে অবলম্বন করে কর্তা ক্রিয়া সম্পাদন করে, তাকে ককর্মকারক বলে।
ক্রিয়াকে 'কী/ কাকে' দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া যায় সেটিই কর্মকারক।

*কর্তা নিজে কাজ না করে কর্মকে দিয়ে কাজ করিয়ে নিলে তাকে প্রযোজক ক্রিয়ার কর্ম বলে।

উদাহরণ-

বাবা আমাকে একটি খাতা কিনে দিয়েছেন। (কাকে দিয়েছেন? আমাকে। কী দিয়েছেন? খাতা) : আমাকে- কর্মকারকে দ্বিতীয়া বিভক্তি (গৌণ কর্ম), খাতা- কর্মকারকে শূণ্য বিভক্তি (মুখ্য কর্ম)

ডাক্তার ডাক। (কাকে ডাকবে?) : কর্মকারকে শূণ্য বিভক্তি

আমারে তুমি করিবে ত্রাণ, এ নহে মোর প্রার্থণা। (কাকে করিবে? আমারে) : কর্মকারকে দ্বিতীয়া বিভক্তি

 #করণ কারক

করণ শব্দের অর্থ যন্ত্র, সহায়ক বা উপায়।
যা দিয়ে বা যে উপায়ে ক্রিয়া সম্পাদন করা হয়, তাকে করণ কারক বলে।
ক্রিয়াকে 'কী দিয়ে/ কী উপায়ে' দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া যায়, তাই করণ কারক।

উদাহরণ-

পিয়াল কলম দিয়ে লিখছে। (কী দিয়ে লেখে? কলম দিয়ে)          :করণ কারকে তৃতীয়া বিভক্তি

কীর্তিমান হয় সাধনায়। (কী উপায়ে হয়? সাধনায়)          : করণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

লাঙ্গল দিয়ে জমি চাষ করা হয়। (কী দিয়ে চাষ করা হয়? লাঙ্গল দিয়ে): করণ কারকে তৃতীয়া বিভক্তি

মন দিয়ে পড়াশুনা কর। (কী উপায়ে/ দিয়ে কর? মন দিয়ে)        :করণ কারকে তৃতীয়া বিভক্তি

ফুলে ফুলে ঘর ভরেছে। (কী দিয়ে ভরেছে? ফুলে ফুলে)             : করণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

শিকারি বিড়াল গোঁফে চেনা যায়। (কী দিয়ে/ উপায়ে চেনা যায়? গোঁফে): করণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

সাধনায় সব হয়। (কী উপায়ে সব হয়? সাধনায়)                   : করণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

 #সম্প্রদান কারক

যাকে স্বত্ব ত্যাগ করে কিছু দেয়া হয়, তাকে সম্প্রদান কারক বলে।

'কাকে দান করা হল' প্রশ্নের উত্তরই হলো সম্প্রদান কারক।

উদাহরণ-

ভিখারিকে ভিক্ষা দাও। (কাকে দান করা হল? ভিখারিকে।) : সম্প্রদান কারকে চতুর্থী বিভক্তি

অসহায়কে খাদ্য দাও। (কাকে দান করা হল? অসহায়কে।) : সম্প্রদান কারকে চতুর্থী বিভক্তি

 #অপাদান কারক

যা থেকে কোন কিছু গৃহীত, বিচ্যুত, জাত, বিরত, আরম্ভ, দূরীভূত, রক্ষিত, ভীত হয়, তাকে অপাদান কারক বলে।

অর্থাৎ, অপাদান কারক থেকে কোন কিছু বের হওয়া বোঝায়।

কী থেকে? কী হতে? 'কি হতে বের হল' ইত্যাদি  প্রশ্নের উত্তরই অপাদান কারক।

উদাহরণ-

শুক্তি থেকে মুক্তি মেলে। (কি হতে বের হল? শুক্তি থেকে) : অপাদান কারকে পঞ্চমী বিভক্তি

বিপদ থেকে বাঁচাও। (কি হতে বাঁচাও? বিপদ হতে)         : অপাদান কারকে পঞ্চমী বিভক্তি

বাঘকে ভয় পায় না কে? (কি হতে ভয় বের হল? বাঘ হতে): অপাদান কারকে দ্বিতীয়া বিভক্তি

বাবাকে বড্ড ভয় পাই। (কি হতে ভয় বের হয়? বাবা হতে): অপাদান কারকে দ্বিতীয়া বিভক্তি

 #অধিকরণ কারক

ক্রিয়া সম্পাদনের কাল এবং আধারকে (সময় এবং স্থানকে) অধিকরণ কারক বলে।

 'কোথায়/ কখন/ কী বিষয়ে' দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া যায়, তাই অধিকরণ কারক।

উদাহরণ-

পুকুরে মাছ আছে। (কোথায় আছে? পুকুরে)         : অধিকরণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

বনে বাঘ আছে। (কোথায় আছে? বনে)                      : অধিকরণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

এ বাড়িতে কেউ নেই। (কোথায় কেউ নেই? বাড়িতে)      : অধিকরণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

নদীতে পানি আছে। (কোথায় আছে? নদীতে)               : অধিকরণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

রবিন অঙ্কে কাঁচা। (কী বিষয়ে কাঁচা? অঙ্কে)          : অধিকরণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

অনিক ব্যাকরণে ভাল। (কী বিষয়ে ভালো? ব্যাকরণে)        : অধিকরণ কারকে সপ্তমী বিভক্তি

ঘরের মধ্যে কে রে? (কোথায়? ঘরে)                         : অধিকরণ করক।

..
 #শেয়ার #ম্যানশন
Share:

HSC Economics suggestions - অর্থনীতি

#HSC
মজায় মজায় শেখা
-----------------------------------
সকল পাড়ায় ছেলে-মেয়েদের মাঝে দু'একজন সবার ক্রাশ থাকে না? যারা পুরো পাড়ার হৃদয়ে রাজত্ব করে! আজ আমরা এরকম কয়েকটা পাড়ার গল্প জানবো, আর ফাঁকেফাঁকে অর্থনীতির একটা কনফিউজিং টপিক শিখে নেবো। 
.
১। এই পাড়ায় সবার ক্রাশ একজন সুন্দরি, তাকে টক্কর দেয়ার মত কোন মেয়ে পাড়ায় নেই। ফলে এলাকার ছেলেসমাজ সুন্দরি একাই নিয়ন্ত্রণ করেন। এই সুন্দরির নাম কি হতে পারে? হ্যা, #মনোপলি! এই নামে কিন্তু এক প্রকার বাজার আছে, যাতে একজন মাত্র বিক্রেতা থাকে এবং বিক্রেতার মতিগতি ওই সুন্দরির মতই!
.
মনোপলি মার্কেটঃ যে বাজারে একজন মাত্র বিক্রেতা, দ্রব্যের কোন ঘনিষ্ঠ পরিবর্তক নেই এবং অন্য বিক্রেতার বাজারে প্রবেশে বাঁধা থাকে, তাকে মনোপলি মার্কেট বা একচেটিয়া বাজার বলে।

২। এই পাড়ায় সবার হৃদয় নিয়ন্ত্রণ করেন দুইজন সুন্দরি। এই দুজনের মাঝে আবার তীব্র প্রতিযোগিতা। ইনি যেটা করে এগিয়ে যেতে চান, তিনি সেটা আরেকটু বাড়িয়ে করেন। কেউ কারো চেয়ে কম থাকতে চান না আরকি! ইনাদের নাম রাখা যায় #ডুয়োপলি

ডুয়োপলি মার্কেটঃ যে বাজারে দুজন বিক্রেতা, অসংখ্য ক্রেতা থাকে তাকে ডুয়োপলি মার্কেট বলে।
.
৩। এই পাড়ায় কয়েকজন সুন্দরি আছেন। সংখ্যাটা দুইয়ের বেশি, কিন্তু খুব বেশি নয়। আমরা তাদের নাম রাখছি #অলিগোপলি। চলো আমরা এই নামের বাজারের প্রকারটা শিখে নেই।
.
অলিগোপলি মার্কেটঃ যে বাজারে বিক্রেতা দুইয়ের অধিক, তবে খুব বেশি না। তাকে অলিগোপলি মার্কেট বলে। 
.
৩। এই পাড়ায় প্রচুর সংখ্যক ছোটখাটো সুন্দরি আছেন, তাদের সৌন্দর্য প্রায় সেম হলে মেকাপ টেকাপ করে একটু পার্থক্য করেন। এ পাড়ার সুন্দরিরা এবং তাদের ফ্যানরা স্বাধীন। যে কেউ যে কারো সাথে ভাবের আদান প্রদান করতে কোন বাঁধা নেই। আমরা এই পাড়ার নাম দিবো #মনোপলিস্টিক কম্পিটিশন মার্কেট।
.
মনোপলিস্টিক কম্পিটিশন মার্কেট বা একচেটিয়া প্রতিযোগিতামূলক বাজার বলতে এমন বাজার বুঝায়, যেখানে বহুসংখ্যক বিক্রেতা, সদৃশ কিন্তু সামান্য পৃথকীকৃত পন্য উৎপন্ন করে, শিল্পে তাদের প্রবেশ ও প্রস্থানে বাঁধা থাকে না তাকে একচেটিয়া প্রতিযোগিতামূলক বাজার বলে।
.
৫। এই পাড়ার ক্রাশ একজন ছেলে। সকল মেয়ের স্বপ্ন ইনিই নিয়ন্ত্রণ করেন। ইনার নাম #মনোপসনি
.
মনোপসনি মার্কেটঃ যে বাজারে ক্রেতা একজন, এবং বিক্রেতা অসংখ্য তাকে মনোপসনি মার্কেট বলে।

৬। এখানে ক্রাশ দুজন ছেলে। ডুয়োপলির সুন্দরিদের মত এদের মাঝেও প্রচুর প্রতিযোগিতা। নামেও মিল, # ডুয়োপসনি

ডুয়োপসনি মমার্কেটঃ যে বাজারে ক্রেতা দুইজন, বিক্রেতা অসংখ্য তাকে ডুয়োপসনি মার্কেট বলে।
.
৭। এইটা এক আজিব পাড়া। এখানে ক্রাশ একজন আছেন এবং তিনি শুধু একজনেরই ক্রাশ! ইনারা হলেন #বাইলেটারাল মনোপলি

বাইলেটারাল মনোপলিঃ যে বাজারে ক্রেতা একজন বিক্রেতাও একজন তাকে বাইলেটারাল মনোপলি মার্কেট বলে।
.
এই ছিলো তোমাদের জন্য 'অপূর্ণ প্রতিযোগিতামূলকবাজারের সাত প্রকার নিয়ে আলোচনা। আশা করছি এর পর আর ভুলবে না। পোস্টে ফ্রেন্ডদের ম্যানশন করো, শেয়ার করে টাইমলাইনে রাখো। সবার জন্য শুভেচ্ছা, শুভকামনা।
.
Share:

HSC Bangla 1st Part - বায়ান্নর দিনগুলো শেখ মুজিবুর রহমান

#টপ_টুয়েন্টি_তথ্য!
শুভ সকাল। 
এইচ এস সি পরীক্ষার্থীদের জন্য এই বিশেষ আয়োজন। 
বিষয় : বাংলা। 
আজকের টপিক
#বায়ান্নর_দিনগুলো
শেখ মুজিবুর রহমান

১।♦শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ই মার্চ গোপালগন্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। 

২।♦বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১০ অক্টোবর বিশ্বশান্তি পরিষদ কতৃক প্রদত্ত 'জুলিও কুরি' পুরস্কারে ভূষিত হন। 

৩।♦বায়ান্নর দিনগুলো 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' থেকে নেওয়া। 

৪।♦অসমাপ্ত আত্মজীবনী ২০১২ সালে প্রকাশিত হয়। 

৫।♦সুপারিনটেনডেন্ট - আমীর হোসেন 
ডেপুটি জেলার - মোখলেসুর রহমান। 

৬।♦১৫ ই ফেব্রুয়ারি অনশন ধর্মঘটের ব্যাপারে আলোচনা আছে এই নিমিত্তে শেখ মুজিব কে জেলগেটে নিয়ে যাওয়া হল। 

৭।♦জেলখানায় ২ জন অনশনের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন - মুজিব ও মহিউদ্দীন। 

৮।♦শেখ মুজিব কে ঢাকা থেকে ফরিদপুর জেলায় পাঠানো হয়। 

৯।♦সুবেদারের বাড়ি - বেলুচি। 

১০।♦মহিউদ্দিন প্লুরিসিস রোগে ভুগছিলেন। 

১১।শেখ মুজিবুর রহমান চারটি চিঠি লিখলেন। 

১২।♦১৯৫২ সালে ক্ষমতায় ছিল - মুসলিম লীগ। এবং মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন - নুরুল আমিন। 

১৩।♦শেখ মুজিবুর রহমানের মুক্তির আদেশ ২৭ ফেব্রুয়ারি আসে। 

১৪।♦শেখ মুজিবের মুক্তির অর্ডার আসে - রেডিওগ্রামে। 

১৫।♦৫ দিন পরে শেখ মুজিব নিজ ঘরে ফেরে। 

১৬।♦বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী তে ১৯৫৫ সাল পর্যন্ত ঘটনাবলীর স্থান পেয়েছে। 

১৭।♦বঙ্গবন্ধুর 
ছোট ভাই - শেখ নাসের, 
বড়কন্যা - শেখা হাসিনা, 
বড়পুত্র - শেখ কামাল, 

১৮।♦বায়ান্নর দিনগুলো রচনায় যে যে জেলার নাম আছে - ফরিদপুর, নারায়নগন্জ, গোপালগন্জ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল। 

১৯। ♦বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি স্বদেশে ফিরে আসেন 

২০।♦বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৫ সালের ১৫ ই আগস্ট দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্রে সামরিক বাহিনীর কতিপয় সদস্যের হাতে সপরিবারে নিহত হন। 

আগামীদিন আরো একটি টপিক নিয়ে হাজির হব। চোখ রেখে গ্রুপে। 
#সফল_হোক_সুন্দর_ভবিষ্যতের_যাত্রা।
Share:

English 2nd Paper Topic Transformation of sentence - HSC EXAM

#Grammar_post_no 08
#Topic_Transformation_of_sentence
#part_02

আমরা আগে voice change, degrees এর rules already অনেক পড়ে আসছি।
but আজকে আমরা একটু ভিন্নভাবে rule গুলো পড়ে দেখি,
 voice change & degrees এর টার্মগুলো আরো clear হয় কিনা।
**Voice Change

   Active voice:
 যে sentence এ subject নিজে সক্রিয় বা active হয়ে কাজ সম্পন্ন করে সে sentence এ verb এর Active voice হয়।

 Structure: 
 Subject + verb + object.
 Example: I do the work.

  Passive voice:
 যে sentence এ subject নিজে কাজটি করে না বরং object এর কাজটি তার ওপর এসে পড়ে তখন সে sentence এ verb এর passive voice হয়।

 Structure:
 Object + be verb + verb এর past participle+ by+ subject.
 Example: The work is done by me.

  Active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম:

 Rule 1:
 a) Active voice এর subject টি passive voice এর object হয়ে যায়।
 b) Active voice এর object টি passive voice এর subject এ রুপান্তর হয়। 
 c) মূল verb এর past participle হয় এবং subject ও tense অনুসারে auxiliary verb/be verb হয়।

  Rule 2:
 Indefinite tense:
 a) Present indefinite – am, is, are.
 b) Past indefinite – was, were.
 c) Future indefinite – shall be, will be.

 Continuous tense:
 a) Present Continuous- am being, is being, are being.
 b) Past Continuous – was being, were being
 c) Future Continuous - shall be being, will be being.

 Perfect tense:
 a) Present Perfect – has been, have been.
 b) Past Perfect- had been.
 c) Future Perfect- shall have been, will have been.

   অথবা
  Rule-1
 Present form/v+s,es = am,is,are+vpp
 do/does                      =am,is,are+vpp

  Rule-2
 Past form/did= was/were+vpp

  Rule-3
 Be verb= be verv+being+vpp

  Rule-4
 Have verb= have verb+being+vpp

  Rule-5
 Modal=modal+be+vpp

  Rules of changing voice : 

 Rule 3:
 a) Present indefinite tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Object এর subject + am/is/are + v3+ by + subject এর object.

 Active – I play football.
 Passive- Football is played by me.
 Active- They eat rice.
 Passive- Rice is eaten by them.

  b) Present continuous tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: 
 Object এর subject + am being/is being/are being + v3+ by + subject এর object.
 Active: I am playing football.
 Passive: football is being played by me. 
 Active: He is eating rice.
 Passive: Rice is being eaten by him.

  c) Present perfect tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Object এর subject + have been/ has been + v3+ by + subject এর object.
 Active: He has eaten rice.
 Passive: Rice has been eaten by him.
 Active: I have played football.
 Passive: Football has been played by me.

  d) Past indefinite tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Object এর subject + was/were + v3+ by + subject এর object
 Active: I ate rice.
 Passive: Rice was eaten by me.
 Active: They played football.
 Passive: Football were played by them.

  e) Past continuous tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: 
 Object এর subject + was being/were being + v3+ by + subject এর object.
 Active: I was eating rice.
 Passive: rice was being eaten by me.
 Active: They were catching fishes.
 Passive: Fishes were being caught by them.

  f) Past perfect tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Object এর subject + had been + v3+ by + subject এর object.
 Active: I had eaten rice.
 Passive: Rice had been eaten by me.
 Active: we had dug the cannel.
 Passive: The cannel had been dug by us.

  g) Future indefinite tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: Object এর subject + shall be/will be + v3+ by + subject এর object.
 Active: I will eat rice.
 Passive: Rice will be eaten by me.
 Active: They will play football.
 Passive: Football will be played by them.

  h) Future continuous tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Object এর subject + shall be being/will be being + v3+ by + subject এর object.
 Active: I will be eating rice.
 Passive: Rice will be being eaten by me.
 Active: They will be playing football.
 Passive: Football will be being

  i) Future perfect tense যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: 
 Object এর subject + shall have been /will have been + v3+ by + subject এর object.
 Active: I will have eaten rice.
 Passive: Rice will have been eaten by me.
 Active: They will have caught the fish.
 Passive: The fish will have been caught by them.

  Rule 4:
 May, might, can, could, must, ought to, going to active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Object এর subject + may, might, can, could, must, ought to, going to এর পরে be + v3+ by + subject এর object.

 Active: I may help you.
 Passive: you may be helped by me.
 Active: you must do the work.
 Passive: The work must be done by you.
 Active: we ought to obey our teachers.
 Passive: our teachers ought to be obeyed by us.
 Active: we are going to open a shop.
 Passive: A shop is going to be opened by us.

  Rule 5:
 Imperative sentence এর active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 A) শুধু মাত্র মূল verb দিয়ে শুরু যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Let + object এর subject + be + v3
 Active: close the door.
 Passive: Let the door be closed.
 Active: shut the window.
 Passive: Let the window be shut.

  B) Do not দিয়ে শুরু যুক্ত যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Let not + object এর subject + be + v3
 Active: Do not close the door.
 Passive: Let not the door be closed.
 Active: Do not shut the window.
 Passive: Let not the window be shut.

  C) Let এর পর যদি কোন ব্যক্তিবাচক object (me, us, you, them, him, her)থাকে এবং তা যদি Imperative sentence হয়, তাহলে active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: 
 Let + object এর subject + be + v3 + by + ব্যক্তিবাচক object.

 Active: Let me play football.
 Passive: Let the football be played by me.
 Active: Let us sing a song.
 Passive: let a song be sung by us. 
 Active: let him give the chance.
 Passive: let the chance be given by him.

  D) Never যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Let not + object এর subject + ever be + v3
 Active: Never tell a lie.
 Passive: Let not a lie ever be told.
 Active: Never go there.
 Passive: let not there ever be gone.

  E) মূল verb এর পর যদি কোন ব্যক্তিবাচক object (me, us, you, them, him, her) থাকে এবং তা যদি Imperative sentence হয়, তাহলে active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: Let + direct object টি বসবে (মূল verb এর পর যে object টি থাকে + be + v3 + for +ব্যক্তিবাচক object

 Active: Buy me a shirt.
 Passive: let a shirt be bought for me.
 Active: Give me a glass of water.
 Passive: Let a glass of water be given for me.
 Interrogative sentence

  Rule 6:
 Interrogative sentence যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 A) Structure: 
 Interrogative sentence কে Assertive sentence এ রুপান্তর করে নিতে হবে + রুপান্তরিত Assertive sentence এর active voice থেকে passive voice এ রুপান্তর করতে হবে + এবার রুপান্তরিত passive voice এর auxiliary verb টিকে প্রথমে বসাতে হবে + শেষে প্রশ্নবোধক চিহ্ন বসে। **** Tense অনুসারে করতে হবে।

 Assertive এর passive: Rice has been eaten by you.
 Passive এ রুপান্তর: Has rice been eaten by you? 
 Active: Is he reading a book?
 Assertive: He is reading a book.
 Assertive এর passive: A book is being read by him.
 Passive এ রুপান্তর: Is a book being read by him?
 Active: Did you play football?
 Assertive: you played football.
 Assertive এর passive: Football was played by you.
 Passive এ রুপান্তর: Was football played by you?

  B) Who যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: Who এর পরিবর্তে By whom + tense ও person অনুযায়ী Auxiliary verb + object এর subject + অনেক সময় tense অনুযায়ী কর্তার পরে be/ being/ been বসাতে হয় + V3+ ?.

 Active: Who is playing football? 
 Passive: BY whom is football being played?
 Active: who will help me?
 Passive: By whom will I be helped?

  C) Whom যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Whom এর পরিবর্তে who + tense ও person অনুযায়ী
 Auxiliary verb + V3 + by + subject এর object +?
 Active: Whom did you see on the road?
 Passive: who was seen by you on the road?

  D) What যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: 
 What + tense ও person অনুযায়ী Auxiliary verb + V3 + by + subject এর object +?

 Active: What do you want?
 Passive: What is wanted by you?

   Rule 7:
 Subject + verb + object + present participle যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure: 
 Object এর subject + tense ও person অনুযায়ী Auxiliary verb + v3 + present participle যুক্ত অংশটি + by + subject এর object.

 Active: I saw him playing cricket.
 Passive: He was seen playing cricket by me.
 Active: I took him for my friend.
 Passive: He was taken for my friend by me.

  Rule 8:
 Double object যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 দুইটা object এর যে কোন একটি subject করতে হয় (personal object কে subject এ রুপান্তর করলে ভাল) + v3 + tense ও person অনুযায়ী Auxiliary verb + প্রদত্ত বাকি object টি বসে + by + active voice এর subject টি object রুপে হয়।

 Active: I gave him a flower. Passive: He was given a flower by me. Active: He teaches us math. Passive: we are taught English by him.

  Rule 9:
 Complex and compound sentence যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Complex and compound sentence যুক্ত active voice এ রূপান্তরের সময় উভয় clause এর voice পরিবর্তন হয়।

 Active: I know that he did the work.
 Passive: It is known to me that the work was done by him.
 Active: He told me that he had done the work.
 Passive: I was told that the work had been done by him.
 Note: Active voice "people say" দিয়ে শুরু হলে It is said দিয়ে passive voice করাই ভাল।
 Active: people say that the lion is the king of forest.
 Passive: It is said that the lion is the lion is the king of forest.

  Rule 10:
 Intransitive verb যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 সাধারনত Intransitive verb এর passive voice হয় না। তবে Intransitive verb এর পরে preposition যুক্ত হয়ে যদি group verb গঠন করে এবং তা Intransitive verb হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাহলে –

 Structure: Object টি subject + tense অনুযায়ী Auxiliary verb + v3 + প্রদত্ত preposition + by + subject টির object।

 Active: The truck run over the boy.
 Passive: The boy was run over by the truck.
 Active: they looked at the poor man.
 Passive: The poor man was looked at by them.

  Rule 11:
 Reflexive object (myself, ourselves, yourselves, yourself, themselves, himself, herself) যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Active voice subject টি অপরিবর্তিত অবস্থায় passive voice এর subject হিসেবে হবে + tense ও person অনুযায়ী Auxiliary verb + v3 + by + Reflexive object বসবে।

 Active: He hanged himself.
 Passive: He was hanged by himself.
 Active: you killed yourself.
 Passive: you were killed by yourself.

  Rule 12:
 Factitive object/Complementary object যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Factitive object/Complementary object( select, elect, nominate, make, call, name ইত্যাদি transitive verb থাকা সত্ত্বেও সম্পূর্ণ রুপে অর্থ প্রকাশ করতে পারে না। পরিপূর্ণ অর্থ প্রকাশ করার জন্য অতিরিক্ত object আনতে হয়। এইরুপ অতিরিক্ত object কে Factitive object/Complementary object বলে।

 Structure: 
 নামবাচক object টির (me, us, you, them, him, her) object টি subject হয়। + tense ও person অনুযায়ী Auxiliary verb + v3 + Factitive object + by + subject এর object।

 Active: They made me captain.
 Passive: I was made captain by them.
 Active: we call him liar.
 Passive: He is called liar by us.

  Rule 13:
 Cognate object যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Cognate object এর সংজ্ঞা – কিছু intransitive verb তাদের সমর্থক object নিয়ে transitive verb হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এ ধরনের object কে Cognate object বলে।

 Structure: Object টি subject + tense অনুযায়ী Auxiliary verb + v3 + by + subject টির object।

 Active: he caught a fish.
 Passive: A fish was caught by him.
 Active: you ran a race.
 Passive: A race was run by you.

  Rule 14:
 Infinitive যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 প্রদত্ত active voice এর subject + মূল verb + infinitive এর পরের object (যদি থাকে) + to be + infinitive এর পরের verb এর v3.

 Active: He wants someone to take camera.
 Passive: He wants camera to be taken. 
 Active: He wants you to write a letter.
 Passive: He wants a letter to be taken.

  Rule 15:
 Gerund combinations অর্থাৎ advise/ propose/ recommend/ suggest + gerund + object যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 প্রদত্ত active voice এর subject + মূল verb + that + gerund এর পরের object টি + should be + প্রদত্ত gerund টি verb এ রূপান্তরিত হয়ে v3 বসে।

 Active: He suggested giving up smoking.
 Passive: He suggested that smoking should be given up.
 Active: He wanted playing football.
 Passive: He wanted that football should be played.

  Rule 16:
 Agree, be anxious, arrange, determine, be determined, decide, demand, + infinitive + object object যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 প্রদত্ত active voice এর subject + মূল verb + that + infinitive এর পরের + object + should be + infinitive এর পরের verb এর v3.

 Active: He decided to buy the house.
 Passive: He decided that the house should be bought.
 Active: you agreed to sell the house.
 Passive: You agreed that the house should be sold.

  Rule 17:
 One + should যুক্ত active voice কে passive voice এ রুপান্তর করার নিয়ম-

 Structure:
 Object এর subject + should be + v3
 Active: one should take care of one's education.
 Passive: Education should be taken care of.

    4.Degree ৩ প্রকার ।

  Change of degree
  Rule1: the superlative হলে The Biggest

  comparative এর জন্য,
 subject +verb + adjective/adverb(comp. form) + Than any other + পরবর্তী অংশ

 positiveএর জন্য,
 No other +পরবর্তী অংশ + verb + so/as + positive form of adj/adv + as + sub.

  Ex: Su: Suman is the tallest boy in the class.
 Com: Suman is taller than any other boy in the class.
 Pos: No other boy in the class is as tall as Suman.

  Rule 2: If In superlative degree 'One of the' is transformed in this way:
 Comparative: Sub+verb +comp. form +than most other+ পরবর্তী অংশ

 Positive: Very few+ rest part after supr. Degree + verb + so/as + positive form of adj/adv + as + sub.

  Ex: Nazrul was one of the greatest poets in Bangladesh.
 Comp.: Nazrul was greater than most other poets in Bangladesh.
 Positive: Very few poets in Bangladesh were so great as Nazrul.

  Note: Superlative: Of all/ of any
 Comparative: Than all other/than any other.
 Positive: x.

  Ex: Sup: Mr. khan is the oldest of all men in the village.
 Com: Mr. Khan is older than all other men in the village.
 Pos: No other man is as old as Mr. Khan.

  Rule 3: Simple comparative is transformed into positive by using
 (not so + adj/adv+as)/ (so+adj/adv+as)if negative. Second noun or pronoun is used first.

 Ex: 1. com: Rina is wiser than Mina.
 Pos: Mina is not so wise as Rina.
 2. Com: Mina is not wiser than Rina.'
 Pos: Rina is as wise as Mina.

  Rules 4: Subject+ verb+ a/an +adjective+ noun/ pronoun+
                 He is a good boy
 Subject+ verb +adj(comp)+ than any other/(than all other +noun plural)/than every other + noun(singular)+……………..

             He is better than any other boy.
 Subject+ verb+ the +adj(superlative)+ noun+ other word.
 He is the best boy

   Rules 5:No other+ subject-------am/is/are/was/were +so/as +adverb/adjective (positive form)+as +Subject.

 Example: No other girl is as good as her.

 Subject +verb +Comparative form+ than+ any other/all other+………………………

  Example; She is better than any other girl in the class.
 Subject +am/is/are/was/were+the +Superlative form+of (if present) +…………

 She is the best girl in  the class.

  Rules 6:Sub+ verb+ not +so/as +adverb/adjective(positive form)+as+…….

 Example; Rina is not so wise as Dina.
 Noun/pronoun +verb+ Comparative form +than+…..
 Example: Dina is wiser than Rina.

  Rules 7:Sub+ verb +as +positive form +as+……..

  Example; A plane flies as fast as a rocket.
 Noun/Pronoun+ do not/does not/did not+ verb+ comparative+ than+ Subject.

  Example: A Rocket does not fly faster than a plane.

বুঝতে কোনো জটিলতা বা অভিযোগ থাকলে কমেন্টে বলতে পারো, আমি solve করার চেষ্টা করবো।
#শুভকামনায়:
Education Squad
Share:

ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা ১ম পত্র - এইচএসসি ১৯' এবং ২০'

বিষয়ঃব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা ১ম পত্র 
ফর এইচএসসি ১৯' এবং ২০'

এইচএসসি তে ব্যবসার শিক্ষা বিভাগে ব্যবস্থাপনা কে একটু সহজ বিষয় মনে করে অনেকে।কিন্তু শেষে দেখা যায় এখানেই খারাপ করে ফেলে।ভাল মার্কস তুলতে মুল বই পুরো পড়ার বিকল্প নেই। কিন্তু সৃজনশীলে নির্দিষ্ট টপিক থেকেই বেশি প্রশ্ন আসে।তাই আমি কিছু টপিক দিচ্ছি।আশা করি এগুলা একটু ভাল করে দেখলে সৃজনশীল কমন পাবে এবং ধরতে পারবে।

সম্পূর্ণ নিজের অভিজ্ঞতা থেকে দিচ্ছি।কারো কপি করা নয়। ভুলত্রুটি ক্ষমার চোখে দেখার অনুরোধ করছি😊।

®®®®®
©সাজেশনঃ

প্রথম অধ্যায়ঃ
★ব্যবসায়ের ধারনা
★শিল্পের ধারনা
★শিল্পের প্রকারভেদ ***
★বানিজ্যের ধারনা,প্রকারভেদ
★ট্রেড,প্রত্যক্ষ সেবা
★ব্যবসায়িক কার্যাবলি***
★সামাজিক ব্যবসায়ের ধারনা

২য় অধ্যায়ঃ
★ব্যবসায় পরিবেশের ধারনা
★উপাদান সমূহ ***
★দেশের ব্যবসায়িক পরিবেশ

৩য় অধ্যায়ঃ
★একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারনা
★বৈশিষ্ট্য,গুরুত্ব 
★ক্ষেত্র সমূহ

৪র্থ অধ্যায়ঃ
★অংশীদারি ব্যবসায়ের ধারনা
★বৈশিষ্ট্য,প্রকারভেদ***
★অংশীদারের প্রকারভেদ***
★চুক্তিপত্র
★বিলোপসাধন পদ্ধতি***

৫ম অধ্যায়ঃ
★কোম্পানির ধারনা
★প্রকারভেদ***
★প্রাইভেট ও পাবলিক কোম্পানির ধারনা
★স্মারকলিপি ও এর ধারা সমূহ***
★পরিমেল নিয়মাবলী,এর বিষয়বস্তু
★বিবরনপত্রের বিষয়বস্তু
★বিলোসাধন পদ্ধতি***
★শেয়ার

ষষ্ঠ অধ্যায়ঃ
★সমবায়ের ধারনা
★নীতিমালা***
★উপবিধির বিষয়বস্তু
★প্রকারভেদ***
★বার্ডের কার্যাবলী

৭ম অধ্যায়ঃ
★রাষ্ট্রীয় ব্যবসায়ের ধারনা
★বৈশিষ্ট্য,সুবিধা,অসুবিধা 
★ডাক বিভাগ,BTCL,BRTC
★ppp এর ধারনা,প্রকারভেদ***

৮ম অধ্যায়ঃ
★প্যাটেন্টের ধারনা
★কপিরাইটের ধারনা
★ট্রেডমার্ক ধারনা
★পরিবেশ দূষন
★ISO এর ধারনা***

৯ম অধ্যায়ঃ
★সহায়ক সেবার ধারনা,প্রকারভেদ***
★বিজিএমইএ এর সহায়তা
★শিল্প ও বনিক সমিতির সহায়তা

১০ম অধ্যায়ঃ
★ব্যবসায়ের উদ্যোগের ধারনা
★উদ্যোক্তার গুনাবলী 
★দেশের উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগের প্রভাব
★আত্মকর্মসংস্থান ও উদ্যোগের সম্পর্ক

১১তম অধ্যায়ঃ
★ব্যবসায়ে তথ্য প্রযুক্তির ধারনা
★প্রয়োজনীয়তা
★ই-বিজনেস
★ই-রিটেইলিং***
★ইকমার্স
★ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড

১২তম অধ্যায়ঃ
★ব্যবসায়ের নৈতিকতা ও মূল্যবোধের ধারনা
★সামাজিক দায়বদ্ধতা***
★বিভিন্ন পক্ষের প্রতি ব্যবসায়ের দায়িত্ব 

#share_mention

Mahmudul Hassan Rakib
Department of AIS
University of Dhaka
Ex college ambassador of SILSWA💖
Share:

বিষয়ঃবাংলা ১ম পত্র - টপিকঃসিরাজউদ্দৌলা নাটক

বিষয়ঃবাংলা ১ম পত্র
টপিকঃসিরাজউদ্দৌলা নাটক
©©©©©

একনজরে গুরুত্বপূর্ণ জ্ঞানমূলক তথ্যাবলীঃ

★প্রধান চরিত্র সিরাজউদ্দৌলা
★ইতিবাচক চরিত্র সিরাজউদ্দৌলা,আমিনা বেগম,মোহন লাল,মির মর্দান,সেনাপতি সাফ্রে,রাইসুল জুহালা
★ক্লেটন বেঈমান বলেছে ওয়ালী খান কে।
★নবাব ছাউনীতে খবর পাঠিয়েছে উমিচাদের গুপ্তচর 
★সিরাজউদ্দৌলার সেনাধ্যক্ষ রাজা মানিকচাদঁ
★ওয়ালী খান কোম্পানির টাকার জন্য তাদের পক্ষে যুদ্ধ করেছে
★গভর্ণর ছিলেন রজার ড্রেক
★গভর্ণর ড্রেকের ধ্বংস চায় উমিচাদ
★"বৃটিশ সিংহ ভয়ে লেজ গুটিয়ে নিলেন এ বড় লজ্জার কথা">উমিচাদ
★গোপনে অস্ত্র আমদানি হয় কাশিমবাজারে
★হলওয়েল ছিলেন ইংরেজ ডাক্তার
★ইংরেজরা এদেশে বানিজ্যের অনুমতি পেয়েছিলো নবাব আলীবর্দি খান থেকে
★ইংরেজরা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয় ফোর্ট উইলিয়াম দূর্গে বসে
★উমিচাদ নবাবের কাছে অনুরোধ করে কৃষ্ণবল্লভের মুক্তির
★পলাশী ভাগিরথী নদীর তীরে অবস্থিত
★কলকাতা থেকে তাড়া খেয়ে জাহাজে ডুকে ড্রেক,মার্টিন,হ্যারীরা
★কিলপ্রাট্রিক ২৫০ জন সৈন্য নিয়ে আসে
★ইংরেজদের চারগুন দামে জিনিসপত্র কিনতে হতো
★কিলপ্রাট্রিক,মার্টিন ৭০ টাকা বেতনের কর্মচারী
★কলকাতার দেওয়ান মানিকচাদ
★"ঘুষ খেয়ে খেয়ে ঘুষ কথাটার অর্থ বদলে গেছে আপনার কাছে">মার্টিন
★ড্রেক লাহোর হয়ে বাংলাদেশে এসেছে
★১২০০০ টাকার বিনিময়ে মানিকচাদ ইংরেজদের কলকাতাতে ব্যবসায়ের অনুমতি দিয়েছিলো
★সকলের লাভ হবে শওকতজঙ্গ নবাব হলে
★নবাবের বিশ্বস্ত সেনাপতি মোহনলাল
★মিরজাফর কোরআন শরীফ ছুয়ে প্রতিজ্ঞা করেছলো
★মিরন নাচগানে বেশি মশগুল থাকতেন
★মিরজাফর উমিচাদকে কালকেউটে বলেছিলো
★চুক্তি অনুযায়ী কলকাতাবাসী ৭০ লক্ষ টাকা পাবে
★সন্ধি অনুযায়ী মির জাফর শুধুমাত্র মাত্র মসনধে বসবে
★পলাশীর যুদ্ধে ইংরেজদের সৈন্য ছিলো তিন হাজার,নবাবের পক্ষে পঞ্চাশ হাজারের বেশি
★সিরাজউদ্দৌলাকে হত্যা করে মোহাম্মদি বেগ
★মিরনের আদেশে সিরাজউদ্দৌলাকে হত্যা করা হয়
★সিরাজউদ্দৌলা একটি ঐতিহাসিক নাটক
★প্রকাশিত হয় ১৯৬৫ সালে
★নাটকে ৪ টি অংক,১২ টি দৃশ্য রয়েছে
★মির জাফরের ৩ পুত্র ছিলো
★আলিনগর চুক্তি ১৭৫৭ সালে বাংলার নবাব ও ইংরেজ প্রতিনিধি রবার্ট ক্লাইভের মাঝে হয়
Share:

English 2nd Paper Modifier Suggestion for HSC Exam 2019-20


#For_HSC_examine:

#Grammar_post_no01:

#Rules_of_modifier:

#Pre-modifier-এর উদাহরণসহ ব্যবহার দেখানো হলোঃ
 1. Adjective as Pre-modifier: এক্ষেত্রে noun বা noun phrase-এর পূর্বে একটি adjective বসে উক্ত noun-কে modify করে। Adjective-এর এ ধরনের ব্যবহারকে attributive use বলা হয়। যেমন-

 (a) Kalam gave him a nice picture.
 (b) It was an attractive football-match.

  2. Noun as Pre-modifier: 
 অনেক ক্ষেত্রে noun-ও noun-কে modify করে। যখন দুটি noun পাশাপাশি বসে, তখন প্রথম noun-টি দ্বিতীয় noun-টিকে modify করে। ফলে, এক্ষেত্রে প্রথম noun-টি noun হয়েও adjective-এর মতো কাজ করে। যেমন-

 (a) Kabir went to a book fair.
 (b) I have bought a book about science fiction.
 (c) Trade Fair should be open to all.

  3.Demonostratives as Pre-modifier:
 Noun এর পূর্বে বসে Demonostrative(this,that,these,those) Pronoun গুলো  Pre-modifier এর কাজ করে 
 a) This pen is mine

  ** Participle as Pre-modifier: 
 আমরা জানি, participle সর্বদা adjective কিংবা adverb-এর কাজ করে থাকে। Participle তিন প্রকার যা pre-modifier হিসেবে কাজ করতে পারে। এগুলো নিম্নরূপঃ

 4. Present Participle as Pre-modifier:
  এটি verb-এর base form-এর সাথে ing যুক্ত হয়ে গঠিত হয়। এই present participle-টি noun-এর পূর্বে বসে adjective-এর কাজ করে। যেমন-

 (a) He saw a running train.
 (b) A barking dog seldom bites.
 (c) A drowning man catches at a straw.

  5. Past Participle as Pre-modifier: 
 এটি verb-এর past participle form দিয়ে গঠিত হয়। এই past participle-টি noun-এর পূর্বে বসে adjective-এর কাজ করে। যেমন-

 (a) It was a written document.
 (b) I have bought some rotten fishes.
 (c) The signed letter was not sent.

  6.Perfect Participle (Phrase) as Pre-modifier: 
 এটি having + verb-এর past participle form + অন্যান্য শব্দ দিয়ে গঠিত হয়। এই perfect participle phrase-টি কোন clause-এর পূর্বে বসে উক্ত clause-টিকে modify করে অর্থাত্ এটি adverb-এর কাজ করে। যেমন-

 (a) Having defeated the soldiers, the Captain sent them to prison.
 (b) Having taken her meal, Nowshin went to college.
 (c) Having married, Neela went abroad with her husband.

  7. Determiner as Pre-modifier: Determiner দ্বারা noun-কে নির্দেশ করা হয়। সাধারণত article (a, an, the) এবং demonstrative pronoun (this, that, these, those) গুলো determiner হিসেবে ব্যবহূত হয় যা noun-এর পূর্বে বসে adjective-এর কাজ করে। যেমন-

 (a) Shushil purchased a mobile.
 (b) The Meghna is a big river.
 (c) She bought that pen yesterday.
 (d) Those players were playing in the field.

  8. Quantifier as Pre-modifier: Quantifier হলো noun-এর পরিমান (quantity) নির্দেশক শব্দ। Singular non-countable noun-এর quantifier হিসেবে সাধারণত much, little, a little, a great/good/vast/little amount of, a lot of, a lot, more, less, some, adequate, enough ইত্যাদি বসে এবং plural countable noun-এর quantifier হিসেবে সাধারণত many, some, few, a great/good number of, a lot of, a lot, three, ten, more, less, several, adequate, enough ইত্যাদি বসে। যেমন-

 (a) She bought ten books from the book fair.
 (b) I don't spend much money unnecessarily.
 (c) Many students attended the seminar.
 (d) Bill Gates has a lot of money.

  9. Compound as Pre-modifier: দুই বা ততোধিক শব্দযোগে compound গঠিত হয় যা noun-এর পূর্বে বসে adjective-এর কাজ করে। Age-old, brand-new, school-going, out-of-order, out-dated, out-of-date, old-fashioned, back-dated, so-called, far-sighted, long-sighted, first-class, new-bo, long-term, short-term, quickly-done, slowly-passing, multi-coloured, multi-storeyed, cash-paid, newly-emerged, above-mentioned, well-constructed, well-paid, well-designed, well-known ইত্যাদি প্রচলিত কতগুলো compound. যেমন-

 (a) Nishat has purchased a brand-new car.
 (b) A hard-working man can prosper in life.
 (c) His father possesses a back-dated idea.
 (d) The govt. has given long-term loan to the poor.

  10. Possessive as Pre-modifier: Possessive হলো my, your, his, her, our, their, its, own, Karim's, Shamima's ইত্যাদি যা noun-এর পূর্বে বসে adjective-এর কাজ করে। যেমন-

 (a) Her sister is an MBBS.
 (b) I have already got your idea.
 (c) Everybody knows its price.

  11. Adverb as Pre-modifier: Adverb হলো below, under, above, up, down, very, fast, last, early, late, then ইত্যাদি যা noun-এর পূর্বে বসে adjective-এর কাজ করে। তবে quickly, slowly, extremely, very, fast, last, soon, late, early, instantly, today, yesterday, here, there ইত্যাদি adverb কোন verb, adjective, adverb কিংবা পুরো sentence-এর পূর্বে বসে adverb-এর কাজ করে। যেমন-

 (a) The then Principal signed this letter.
 (b) The down train will go there.
 (c) The above passage is very difficult.
 (d) This is the very man you like to meet.
 (e) The last man has already left the place.
 (f) That question was very important.
 (g) The lady walks extremely slowly.
 (h) It is a quickly increasing market.
 (i) Instantly he left the place.
 (j) There she was waiting for him eagerly.

12.Gerund as noun pre modifier:
a.Barking dogs.
B.Working fields.
c.flying bird.

  #B. Post-modifier: 

যে modifier সাধারণত কোন noun বা noun phrase-এর পরে বসে তাকে post-modifier বলে। যেমনঃ Kumkum has bought a book written by Nazrul. এখানে written by Nazrul এই past participle phrase-টি book-কে modify করেছে; ফলে written by Nazrul হলো post-modifier.

 বিভিন্ন ধরনের Post-modifiers:
 নিম্নে বিভিন্ন ধরনের post-modifier-এর উদাহরণসহ ব্যবহার দেখানো হলোঃ
 1. Adjective / Adjective Phrase as Post-modifier: এক্ষেত্রে noun বা noun phrase-এর পরে একটি adjective / adjective phrase বসে উক্ত noun-কে modify করে। যেমন-

 (a) We made the room decorative.
 (b) He did not find anything wrong in her behaviour.
 (c) All the students present in the class protested the proposal.
 2. Appositive as Post-modifier:
 যখন দুটি noun বা noun phrase পাশাপাশি বসে একই ব্যক্তি, বস্তু বা প্রাণিকে বুঝায় তখন দ্বিতীয় noun/noun phrase-টিকে প্রথম noun/noun phrase-টির appositive বা case in apposition বলা হয়। উল্লেখ্য যে, এক্ষেত্রে দ্বিতীয় noun/noun phrase-টি প্রথম noun/noun phrase সম্পর্কে অতিরিক্ত তথ্য প্রদান করে adjective-এর কাজ করে। যেমন-

 (a) Babor, emperor of Delhi, was a pious man.
 (b) Mr. Robin, the General Manager, is attending the party today.
 (c) Everybody knows Kazi Nazrul Islam, a great poet in Bengali literature.
 3. Participle (Phrase) as Post-modifier: Participle/Participle phrase সর্বদা adjective কিংবা adverb-এর কাজ করে থাকে। Participle/Participle phrase তিন প্রকার যা pre-modifier-এর মতো post-modifier হিসেবেও কাজ করতে পারে। এগুলো নিম্নরূপঃ

  (i) Present Participle (Phrase) as Post-modifier: Verb-এর base form-এর সাথে ing যুক্ত হয়ে present participle গঠিত হয়। আবার, verb-এর base form-এর সাথে ing + অন্যান্য শব্দ দিয়ে present participle phrase গঠিত হয়। এই present participle (phrase)-টি noun/pronoun-এর পরে বসে adjective-এর কাজ করে। যেমন-

  (a) We found the boys playing.
  (b) The man lying on the floor is a patient.
  (c) He saw her going to market.
4.Adverb as post modifier:
 যেমন:
slowly, quickly, here,yesterday, never,always, often, rarely, usually, almost, already, hardly, nearly, just,quite,ever,barely,seldom, scarcely etc.
A.Jany drives slowly
B.I called him yesterday
C.she is coming here.

5.  infinitive as verb post modifier:

a.He goes there to learn

   #Read the following text and use modifiers as directed is the blank spaces:

  As his reputation (a)——( post-modify the noun) soared higher and higher, fate followed (b)——( post-modify the verb). Stephen (c)——( pre-modify the verb) started losing control over the muscles of his body (d)——( post-modify the verb). (e)———( pre-modify the verb), he has been confined to a wheel chair with no power (f)——( post-modify the noun). He can speak (g)——( post-modify the verb) with a voice synthesiser (h)——(post-modify the noun). But Stephen is still a (i)——( pre-modify the noun) worker, using his computer (j)——( post-modify the verb).

  Ans: a) as a great scientist b) with less rewarding things c) gradually d) as he gradually  became a victim of Gehrig's disease  e) since the age of thirty f)to control his body g) only through a computer h) that converts his messages into sounds i) relentless j) to carry out research work.

  I experienced a very interesting incident
  (a)——( post-modify the verb) on my way to Rangpur. My friend Rashed,(b)——(post-modify the noun with an appositive) was driving. A cow was crossing the road but suddenly in the middle of the road  it stopped and remained standing. In a minute Rashed had to change his course but he did not have (c)——-( pre-modify the noun) time and space to do that. Rashed tried to tu in the left when the cow too walked

  (d)——-( post-modify the verb) back a few steps. To save (e)——( use a demonstrative to pre-modify the noun) cow Rashed had to move in the right. He lost his control and bumped the car with a (f)——( use a noun adjective to pre-modify the noun) tree. (g)——( use a participle to pre-modify the verb). Rashed was shocked but he was (h)—-( use an intensifier to pre-modify the adjective) happy (i)——-( use an infinitive phrase to post-modify the verb). He patted the (j)——-(pre-modify the noun) cow and burst into laughter.

  Ans: a) last week on my way to Rangpur b)a famous athlete was driving c) enough d) slowly e) that f) jackfruit tree g) seeing the damage in his new car h)  very happy i) to save the cow j) naughty
Courtesy: Collected from SILSWA

#must_be_Mention_Share_for_next_post.

Next post: #Pronoun_Reference 

-Education Squad
Share:

Featured Post

SSC Exam Routine 2019,Dakhil Exam Time Table 2019,SSC and Dakhil

SSC Exam Routine 2019,Dakhil Exam Time Table 2019,SSC and Dakhil SSC Routine 2019: Secondary School Certificate (SSC) Exam 2019 will be...