দেশের দীর্ঘতম রেলপথ: (৪০তম বিসিএস আপডেট)

দেশের দীর্ঘতম রেলপথ: (৪০তম বিসিএস আপডেট)
Dhaka to panchagore
এর দৈর্ঘ্য --৬৩৯ কি.মি.
চালুহয়--১০ নভেম্বর ২০১৮
এই রুটে স্টেশন--২৩ টি
এই রুটের দুটি ট্রেন --
১.একতা এক্সপ্রেস
২.দ্রুতজান এক্সপ্রেস
নোট: পূর্বে বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেলপথ ছিল ঢাকা টু খুলনা ৬২৭ কি.মি. 
*১৮৫৩ সালে উপমহাদেশে প্রথম রেল যোগাযোগ চালুহয়।
*বর্তমানে দেশে রেল পথের দৈর্ঘ্য--২৮৭৭ কি.মি.

ইংরেজি সাহিত্যঃ ১০ম থেকে ৩৭ তম বিসিএস প্রিলিমিনারিতে এই সকল লেখকদের থেকে প্রশ্ন হয়েছে

ইংরেজি সাহিত্যঃ ১০ম থেকে ৩৭ তম বিসিএস প্রিলিমিনারিতে এই সকল লেখকদের থেকে প্রশ্ন হয়েছে-
William Shakespeare -------------------- [16th, 29th, 29th, 35th, 35th, 36th, 36th, 36th, 37th, 37th, 37th BCS]
William Wordsworth---------------------[31st, 35th, 36th, 36th, 36th BCS]
Ernest Hemingway------------------------[10th, 11th, 12th, 37th BCS]
George Bernard Shaw--------------------[12th, 35th, 36thBCS]
S. T. Coleridge----------------------------[13th, 36th, 37thBCS]
Charles Dickens---------------------------[29th, 36th, 36thBCS]
W. B. Yeats--------------------------------[35th, 36th, 36thBCS] 
Robert Browning--------------------------[11th, 17th, 37thBCS]
P. B. Shelley-------------------------------[17th, 28th, 37thBCS]
George Orwell----------------------------[10th, 28th] 
O' Henry / William Sydney Porter-----[13th, 14thBCS]
Thomas Gray------------------------------[36th, 37th BCS]
T. S. Eliot----------------------------------[13th, 37thBCS]
John Keats---------------------------------[12th, 17th BCS]
Ben Jonson--------------------------------[37th BCS]
John Milton -------------------------------[14th BCS]
Christopher Marlowe--------------------[35th BCS]
Jonathon Swift---------------------------[12th BCS]
William Blake----------------------------[15th BCS]
E. M. Foster-------------------------------[36th BCS]
Thomas Hardy----------------------------[36th BCS]
George Eliot-------------------------------[35th BCS]
Edmund John Millington Synge--------[35th BCS]
Virginia Woolf---------------------------[31st BCS]
Samuel Johnson--------------------------[28th BCS]
Henry Fielding---------------------------[13th BCS]
Bertrand Russell-------------------------[12th BCS
D. H. Lawrence--------------------------[13th BCS]

শিল্প বিপ্লব-১৭৬০ BCS Suggestion

শিল্প বিপ্লব-১৭৬০
✔ আমেরিকা মুক্ত-১৭৭৬
✔ ফোর্ট উইলিয়াম কলেজ -১৮০০
✔ ওয়াটার লুর যুদ্ধ -১৮১৫
✔ দাশ প্রথার বিলোপ-১৮৬৩
✔ আব্রাহাম লিংকন মারা যান-১৮৬৫
✔ সুয়েজ খাল খনন-১৮৬৯
✔ ফরাসি বিপ্লব-১৭৮৯
✔ নোবেল চালু - ১৯০১
✔ ফিফা গঠিত-১৯০৪
✔ বঙ্গভঙ্গ -১৯০৫
✔ বঙ্গভঙ্গ রদ-১৯১১
✔ টাইটানিক ধংস-১৯১২
✔ রবীন্দ্রনাথের নোবেল লাভ-১৯১৩
✔ প্রথম বিশ্ব যুদ্ধ শুরু হয়-১৯১৪
✔ রুশ বিপ্লব-১৯১৭
✔ প্রথম বিশ্ব যুদ্ধ শেষ-১৯১৯
✔ ঢাবি স্থাপিত-১৯২১
✔ হিটলার চ্যানসেলর হন-১৯৩৩
✔ দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধ শুরু-১৯৩৯
✔ ছিয়াত্তরের মনবন্তর-১৯৪৩
✔ দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধ শেষ-১৯৪৫
✔ জাতিসংঘ-১৯৪৫
✔ দেশ বিভাগ-১৯৪৭
✔ আরব-ইসরায়েল যুদ্ধ-১৯৪৮
✔ বিবিসির যাত্রা-১৯৪৯
✔ এভারেস্ট বিজয়-১৯৫৩
✔ সুয়েজ খাল জাতীয়করন-১৯৫৬
✔ চাঁদে ১ম মানুষ যায়-১৯৬৯
✔ ইরানে ইসলামী বিপ্লব-১৯৭৯
✔ মাদার তেরেসার নোবেল লাভ-১৯৭৯
✔ দুই জার্মানী একত্রিত হয়-১৯৯০
✔ নেলসন ম্যান্ডেলা প্রেসিডেন্ট হন-১৯৯৪
✔ জাতিসংঘ নোবেল পায়-২০০৭
✔ এপিজে আঃ কালাম মারা যান-২০১৫
✔ মোঃ আলী মারা যান-২০১৬

ইংরেজী সাহিত্যের প্রধান ৮ টি যুগ মনে রাখুন এভাবে: OMR N ROVI MP

# ইংরেজী সাহিত্যের প্রধান ৮ টি যুগ
মনে রাখুন এভাবে: OMR N ROVI MP
বাংলায়: ওমর এন্ড রভি এমপি।
O দিয়ে Old English period(450-1066).
M দিয়ে Middle period(1066-1500).
R দিয়ে Renaissance period(1500-1660)
N দিয়ে Neoclassical period(1660-1798)
RO দিয়ে Romantic period(1798-1832)
VI দিয়ে Victorianperiod(1832-1901).
M দিয়ে Modern period(1901-1939).
P দিয়ে Post modern period(1939--)

সংবিধানের ১২০ টি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন

সংবিধানের ১২০ টি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন।

1. প্রশ্ন: যুদ্ধপরাধীদের বিচারসংক্রান্ত সংবিধানের অনুচ্ছেদটি হলো -
উত্তর: ৪৭
2.প্রশ্ন: বাংলাদেশ সংবিধানের কোন সংশোধনীর মাধ্যমে বাকশাল প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল?
উত্তর: চতুর্থ
3.প্রশ্ন: বাংলাদেশ সংবিধানের কোন ভাগে মৌলিক অধিকারের কথা বলা হয়েছে?
উত্তর: তৃতীয় ভাগে
প্রশ্ন: বাংলাদেশ সংবিধানে প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল বিষয়টি কোন অনুচ্ছেদে সন্নিবেশিত হয়েছে?
উত্তর: ১১৭
4. প্রশ্ন: "আইনের চোখে সব নাগরিক সমান।" – বাংলাদেশের সংবিধানের কত নম্বর ধারায় এ নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়েছে?
উত্তর: ধারা ২৭
5. প্রশ্ন: তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা সংবিধানের কততম সংশোধনীর মাধ্যমে রদ করা হয়েছে?
উত্তর: ১৫ তম
6) বাংলাদেশের সংবিধানের প্রনয়ণের প্রক্রিয়া শুরু হয় কবে?
উঃ- ২৩ মার্চ, ১৯৭২।
7) বাংলাদেশের সংবিধান কবে উত্থাপিত হয়?
উঃ- ১২ অক্টোবর, ১৯৭২।
8) গনপরিষদে কবে সংবিধান গৃহীত হয়?
উঃ- ০৪ নভেম্বর,১৯৭২।
9) কোন তারিখে বাংলাদেশের সংবিধান বলবৎ হয়?
উঃ- ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৭২।
10) বাংলাদেশে গনপরিষদের প্রথম অধিবেশন কবে অনুষ্ঠিত হয়?
উঃ- ১০ এপ্রিল, ১৯৭২।

11) সংবিধান প্রনয়ণ কমিটি কতজন সদস্য নিয়ে গঠন করা হয়?
উঃ- ৩৪ জন।
12) সংবিধান রচনা কমিটির প্রধান কে ছিলেন?
উঃ- ডঃ কামাল হোসেন।
13) সংবিধান রচনা কমিটির একমাত্র মহিলা সদস্য কে ছিলেন?
উঃ- বেগম রাজিয়া বেগম।
14) বাংলাদেশ সংবিধানের কয়টি পাঠ কয়েছে?
উঃ- ২ টি। বাংলা ও ইংরেজি।
15) কি দিয়ে বাংলাদেশের সংবিধান শুরু ও শেষ হয়েছে?
উঃ- প্রস্তাবনা দিয়ে শুরু ও ৭টি তফসিল দিয়ে শেষ।
16) বাংলাদেশের সংবিধানে কয়টি ভাগ আছে?
উঃ- ১১ টি।
17) বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ/ধারা কতটি?
উঃ- ১৫৩ টি।

18) বাংলাদশের প্রথম হস্তলেখা সংবিধানের মূল লেখক কে?
উঃ- আবদুর রাউফ।
19) প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ ছাড়া কোন কাজ রাষ্ট্রপতি এককভাবে করতে সক্ষম?
উঃ- প্রধান বিচারপতির নিয়োগ দান।
20) রাষ্ট্রপতির মেয়াদকাল কত বছর?
উঃ- কার্যভার গ্রহনের কাল থেকে ৫ বছর।
21) একজন ব্যক্তি বাংলাদশের রাষ্ট্রপতি হতে পারবেন কত মেয়াদকাল?
উঃ- ২ মেয়াদকাল।
22) কার উপর আদালতের কোন এখতিয়ার নেই?
উঃ- রাষ্ট্রপতি।
23) জাতীয় সংসদের সভাপতি কে? উঃ- স্পিকার।

24) রাষ্ট্রপতি পদত্যাগ করতে চাইলে কাকে উদ্দেশ্য করে পদত্যাগ পত্র লিখবেন?
উঃ- স্পিকারের উদ্দেশ্যে।

চলবে....

৪০তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি বিজ্ঞান (রিভিশন বিগত সাল)

৪০তম বিসিএস প্রিলি 
প্রস্তুতি

#বিজ্ঞান (রিভিশন বিগত সাল)
-------------------------------
১। চাঁদে বস্তুর ভর পৃথিবী হতে বেশি না কম? (৩৭ তম প্রিলি) [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ কম। চাঁদে বস্তুর ভর পৃথিবীর ভরের এক ষষ্ঠমাংশ অর্থা ৬ ভাগের ১ ভাগ।
২। 'বিগ ব্যাং থিওরী' কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান] [৩১ তম প্রিলিমিনারি] 
উত্তরঃ এটা হলো মহাবিশ্ব সৃষ্টির সময়ের মহাবিস্ফোরণ। যখন একই সাথে স্থান, সময় ও পদার্থ সৃষ্টি হয়েছে। জর্জ লেমিটেয়ার এই বিগ ব্যাং থিওরীর প্রবক্তা। 
৩। কেমোথেরাপি কী ? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান] 
উত্তরঃ রাসায়নিক পদার্থের প্রয়োগের মাধ্যমে ক্যান্সারের চিকিৎসা পদ্ধতিকে কেমোথেরাপি বলে। এর জনক হলেন পল এহর্লিক। 
৪। নবায়নযোগ্য শক্তি বলতে কী বুঝায় ? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ যে শক্তি একবার শেষ হয়ে গেলেও চার্জের মাধ্যমে পুনরায় নবশক্তিতে পরিণত করা যায় তাকে নবায়নযোগ্য শক্তি বলে। যেমন: স্টোরেজ ব্যাটারি ও পারমুটিট।
৫। সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ সমুদ্রে ঘূর্ণিঝড়ের সঙ্গে বাতাস সমুদ্রের উপর বল প্রয়োগ করে প্রচণ্ড ঢেউয়ের সৃষ্টি করে যাকে সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস বলে। 
৬। এইডস (AIDS) কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ AIDS এর পূর্ণরূপ Acquired Immune Deficiency Syndrome. এটি একটি মারাত্মক সংক্রামক ব্যাধি। যা ১৯৮১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে পাওয়া যায়। 
৭। নিউট্রন তারকা কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ অত্যন্ত ঘনীভূত নিউট্রন কণিকা দ্বারা সৃষ্ট ক্ষুদ্রাকৃতির তারকা হল নিউট্রন তারকা। 
৮। ক্লোরোফিল কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ উদ্ভিদের ক্লোরোপ্লাস্টিডে অবস্থিত সবুজ বর্ণের রঞ্জক হলো ক্লোরোফিল। 
৯। ওজোন কী? [১০ম বিসিএস লিখিত বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ওজোন অক্সিজেনের একটি রূপভেদ। এর সংকেত O₃. ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৬৫ মাইল উপরে বায়ুমণ্ডলের চতুর্থ স্থরকে ওজোন স্থর বলে। 
১০। আয়ন স্থর কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ মেসোমণ্ডলের ওপরের স্থর আয়নস্থর নামে পরিচিত। এর ব্যাপ্তি ভূ-পৃষ্ঠের ৮০ কিলোমিটার উর্ধ্ব হতে ৬৪৪ কিলোমিটার পর্য্ন্ত ।
১১। সৌরশক্তি কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ সূর্য্ থেকে প্রাপ্ত শক্তিই সৌর শক্তি। সূর্য্ হতে ফিউশন প্রক্রিয়ায় এই শক্তি উৎপন্ন হয়। 
১২। এসিড বৃষ্টি কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ শিল্প-কারখানা অঞ্চলে বৃষ্টির পানির সাথে যে এসিডিক পলি মাটিতে পতিত হয় তাই এসিড বৃষ্টি।
১৩। অতিরিক্ত সাবান ব্যবহারে পুকুরের পানিতে কী ক্ষতি হয়? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ সাবানে থাকে সোডিয়াম স্টিয়ারেট। যা পুকুরের ইকোসিস্টেম নষ্ট করে খাদ্যচক্র ক্ষতিগ্রস্ত করে। 
১৪। সুষম খাদ্য কাকে বলে? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ খাদ্যের উপাদানসমূহের নির্দিষ্ট অনুপাতের সংমিশ্রণে যে খাদ্য প্রস্তুত করা হয় তাকে সুষম খাদ্য বলে। সুষম খাদ্যের উপাদান ৬ টি।
১৫। কোলেস্টেরল কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ কোলেস্টেরল অ্যালকোহল জাতীয় এক ধরনের স্টেরয়েড। শরীরের চর্বি হতেই কোলেস্টেরলের উৎপত্তি। 
১৬। কৃত্রিম বস্তু দ্বারা তৈরি ব্যাগ পরিবেশে কী দূষণ ঘটায়? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ কৃত্রিম বস্তু বা পলিথিনতাতীয় যৌগের তৈরি ব্যাগ পানিতে বা মাটিতে পচে না। ফলে পানি নিষ্কাশন ও চাষাবাদে ব্যাঘাত ঘটায়।
১৭। আকাশের রং নীল কেন? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ যে আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য সবচেয়ে কম সে আলোর বিক্ষেপণ বেশি। এজন্য কম তরঙ্গদৈর্ঘ্য বিশিষ্ট বেগুনী, নীল ও আসমানী আলোর বিক্ষেপণ অধিক হয়। নীল আলোর বিচ্যুতি লাল ও বেগুনী আলোর বিচ্যুতির মাঝামাঝি বলে নীল আলোর প্রাচুর্য্ ঘটে। ফলে আকাশ নীল দেখায়। 
১৮। ফ্যাক্স কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ফ্যাক্স একটি ইলেকট্রনিক যন্ত্র যা দ্বারা লিখিত বক্তব্য একস্থান হতে অন্যস্থানে পৌঁছানো যায়। 
১৯। সিসমোস্কোপ কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ভূমিকম্পের উৎস, ভূমিকম্পের তীব্রতা ও ভূমিকম্পের শক্তিমাত্রা নির্ণয়ের যন্ত্রকে সিসমোস্কোপ বলে।
২০। গ্রহ জ্বল জ্বল এবং নক্ষত্র মিটমিট করে জ্বলে কেন? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ গ্রহের নিজের কোন আলো নেই। নক্ষত্রের আলো গ্রহের উপর প্রতিফলিত হয় বলে গ্রহকে জ্বল জ্বল করতে দেখায়। অপরদিকে নক্ষত্রের নিজস্ব আলো রযেছে। অনেক দূর থেকে দেখা যায় বলে নক্ষত্রের আলোকে মিট মিট করতে দেখায়। 
২১। চোখের হ্রস্বদৃষ্টি ও দীর্ঘদৃষ্টি ক? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ যে চোখ দিয়ে দূরের জিনিস স্পষ্ট দেখতে পায় না কিন্তু কাছের জিনিস স্পষ্ট দেখতে পায় তাকে হ্রস্বদৃষ্টি বলে। অপরদিকে যে চোখ দিয়ে কাছের জিনিস স্পষ্ট দেখতে পায় না কিন্তু দূরের জিনিস দেখতে পায় তাকে দীর্ঘদৃষ্টি বলে। 
২২। ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ একটি আলোকযন্ত্র যা দিয়ে অতি ক্ষুদ্র জীবাণু, ভাইরাস টিস্যু ও ব্যাকটেরিয়া পর্য্বেক্ষণ করা হয়। 
২৩। শূন্য স্থানে আলোর বেগ কত? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ প্রতি সেকেন্ডে 3 × 108 মিটার = 30,0000000 মিটার।
২৪। সূর্য্ হতে পৃথিবীতে আলো আসতে কত সময় লাগে? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান] 
উত্তরঃ ৫০০ সেকেন্ড বা ৮ মিনিট ২০ সেকেন্ড।
২৫। কসমিক রে কী বা মহাজাগতিক রশ্মি কী? [১০ ম বিসিএস বিজ্ঞান]
উত্তরঃ মহাশূন্য থেকে পৃথিবীর চারদিকে নানা ধরনের আলো ও কণা আলোর বেগের কাছাকাছি বেগে আঘাত হানে। এদের কসমিক রে বলে।

পুলিশের সাব ইন্সপেক্টর নিরস্ত্র পদে ৩৮ ব্যাচে পরীক্ষার প্রস্তুতির A to Z

#পুলিশের_সাব_ইন্সপেক্টর_নিরস্ত্র পদে ৩৮ ব্যাচে পরীক্ষার প্রস্তুতির A to Z ।

সম্প্রতি বাংলাদেশ পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) পদে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। এই চাকরির পরীক্ষা পদ্ধতি এবং সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে চাকরি প্রার্থীরা জানলে উপকৃত হবেন।

এ পদে নারী ও পুরুষ উভয় প্রার্থীই আবেদনের সুযোগ পাবেন।
প্রাথমিকভাবে শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের আবেদন ফরম পূরণ করে ৭ মের মধ্যে নিজ নিজ রেঞ্জ ডিআইজির কার্যালয়ে জমা দিতে হবে।

আগামী ২৮, ২৯ ও ৩০ এপ্রিল সকাল ৯টায় শারীরিক মাপ ও পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এটি অনুষ্ঠিত হবে পুলিশের আটটি বিভাগীয় রেঞ্জে।

এ সময় প্রার্থীদের
১.শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের মূল কপি,
২. সর্বশেষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তৃক প্রদত্ত চারিত্রিক সনদের মূল কপি, 
৩.জাতীয় পরিচয়পত্রের মূল কপি, 
৪.নাগরিকত্ব সনদের মূল কপি, 
৫.সত্যায়িত ৩ কপি সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবিসহ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে আনতে হবে।

#আবেদনের_যোগ্যতা
সাব-ইন্সপেক্টর পদে আবেদন করতে হলে আবেদনকারীকে ন্যূনতম স্নাতক পাস হতে হবে। পাশাপাশি কম্পিউটারে অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। প্রার্থীদের অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক এবং অবিবাহিত হতে হবে। সাধারণ প্রার্থীদের বয়স ১ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে ১৯ থেকে ২৭ বছর এবং মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের ক্ষেত্রে একই তারিখে বয়স ১৯ থেকে ৩২ বছরের মধ্যে হতে হবে।

#শারীরিক_যোগ্যতা-
→পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি ও সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩২ ইঞ্চি হতে হবে। 
→নারী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা কমপক্ষে ৫ ফুট ২ ইঞ্চি হতে হবে।

#যে_দিন_পরীক্ষা
নির্ধারিত তারিখে শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের প্রথমে লিখিত পরীক্ষা নেয়া হবে।

♦১৬ জুন ২০১৯ তারিখ 
সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত 
#ইংরেজি(৫০) ও বাংলা(৫০)=১০০
#আমদের_কোচিং_থেকে_আপনাকে_শিট_ও_সাজেশন_প্রদান_করা_হবে_গতবারের_মতো_কমন_চলে_আসবে_ইনশাল্লাহ। 
আমাদের ক্লাসগুলো করলে বাংলা ও ইংরেজিতে সবচেয়ে দূর্বল প্রার্থী ও সেরা নং তুলতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।]
বাংলা রচনা, ভাব সম্প্রসারণ, বাগধারা দিয়ে বাক্য গঠন, এক কথায় প্রকাশ ও অনুবাদ বিষয়ে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। 
৩৭তম এসঅাই নিয়োগের মতো এবারও আমাদের শিট থেকে কমন চলে আসবে ইনশা আল্লাহ।

♦১৭ জুন ২০১৯ তারিখ 
সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত 
সাধারণ জ্ঞান(৫০) ও পাটিগণিত (৫০) বিষয়ে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে।
[গনিতে পূর্ণ নম্বর মানেই আপনার লিখিত পাস নয় চাকুরীর পথই সহজ হয়ে যায়। আমাদের বিসিএস ক্যাডার শিক্ষক ইনশাআল্লাহ আপনার এই বিষয়টা নিশ্চিত করবেন।

♦১৮ জুন ২০১৯ তারিখ 
সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত 
২৫ নম্বরের মনস্তত্ত্ব পরীক্ষা হবে। 
সাধারণ জ্ঞান ও মনস্তাত্ত্বিক বিষয়ে ক্লাসের পড়া ও শিটই যথেষ্ট।

পরীক্ষার স্থান প্রার্থীদের পরবর্তী সময়ে জানানো হবে।

#আবেদনপত্র_জমা
শারীরিক মাপ ও শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের সংশ্লিষ্ট রেঞ্জের ডিআইজির কাছ থেকে ওই দিনই তিনশত টাকা নগদ মূল্যে আবেদনপত্র ক্রয় করতে হবে। এরপর বাংলাদেশ পুলিশের অনুকূলে যেকোনো রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক থেকে পরীক্ষার ফি ৩০০ টাকা ১-২২১১-০০০০-২০৩১ অথবা ১২২০২০১১৩৫৯৫৪১৪২২৩২৬ নম্বর কোডে ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমাপূর্বক চালানের মূল কপিসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংযুক্ত করতে হবে।

আবেদন ফরম সঠিকভাবে পূরণ করে ৭ মে ২০১৯ তারিখের মধ্যে নিজ নিজ রেঞ্জ ডিআইজির কার্যালয়ে জমা দিতে হবে।

আর্থিক লেনদেনে জড়িত থাকার কোনো অভিযোগ প্রমাণিত হলে নিয়োগ বাতিল করা হবে।

সাব-ইন্সপেক্টর নিয়োগ ২০১৯ এ যারা পরীক্ষা দিতে আগ্রহী তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি..

৩৫, ৩৬ ও ৩৭তম এস আই নিয়োগের আগে আমরা আয়োজন করে যাচ্ছি "এস. নিয়োগ লিখিত কোচিং ও মডেল টেস্ট"। উক্ত ব্যাচ সমূহে আমাদের প্রার্থীদের থেকে ৬০% প্রার্থী লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে গতবারও এবং চূড়ান্তভাবে ২৭জন গর্বিত পুলিশ অফিসার হিসাবে বর্তমানে সারদায় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন।

৩৭তম ব্যাচে আমরা মাত্র ২১ দিন সময় পেয়েছিলাম ক্লাস ও পরীক্ষার জন্য। এবার আমরা মূলত তুলনামূলক (২ মাস)দিগুণ সময় হাতে পাচ্ছি যাতে থাকছে-
প্রতিটি বিষয়ের পর্যাপ্ত ক্লাস ও পরীক্ষা এবং সাজেশন প্রদান করা হবে।
আপনাদের আমরা ৩৭তম ব্যাচের মতো বিষয় ভিত্তিক লেকচার শিট ও সাজেশন প্রদান করবো। গত ব্যাচে বাংলা ইংরেজি গণিত ও সাধারণ জ্ঞান সহ সকল বিষয়ে আমাদের সাজেশান্স থেকে হুবহু কমন এসেছিল।
বাংলাদেশ পুলিশের একজন গর্বিত অফিসার হওয়া যদি আপনার সত্যিই টার্গেট থাকে তাহলে আপনি আজই যোগাযোগ করুন আমাদের অফিসে। 
আমরা আপনার চাকুরী নিশ্চিত করবো না আমরা আপনার চাকুরী পাওয়ার পথ সহজ করে দিবো ইনশাআল্লাহ।
ক্লাস টাইম সকাল- ৯টা বিকাল-৫টা/রমজানে ৩টা
কোর্স ফি-৩৫০০/-
যোগাযোগ- চকবাজার সিঙ্গার শো-রুমের উপরে।
বিসিএস হেল্পলাইন ভবন -৩য় তলা, চট্টগ্রাম।
মোবাইল -01811110101/01776196273

এবার জেনে নিন (এস. আই)
হলে আপনি কী কী সুবিধা পাবেন।

#এস.আই(নিরস্ত্র):
পুলিশের এই পদটি সেকেন্ড ক্লাস গেজেটেড অফিসার। সাব-ইন্সপেক্টরকে পুলিশের বাহিনীর মেরুদন্ড বলা হয়। কারণ, তারা ইনভেস্টিগেশন অফিসার হিসাবে প্রায় সকল মামলার তদন্ত করা সহ মাঠ পর্যায়ে আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ করে। আর নিরস্ত্র মানে যারা মামলার তদন্ত করতে পারবে এবং অস্ত্র বহন করতে পারবে। সশস্ত্র পুলিশ সদস্যরা মামলা তদন্ত করতে পারবে না তবে অস্ত্র বহন করবে।

-----------------------------------
পুলিশ সাব-ইন্সপেক্টর পদে চাকুরি পেতে আপনাকে অতিক্রম করতে হবে মোট ৫ টি ধাপ। এধাপ গুলো সফলতার সাথে অতিক্রম করতে পারলেই পাবেন স্বপ্নের চাকুরি।
ধাপগুলো হলোঃ-
১. শারিরীক বাচাই ও প্রাথমিক মেডিকেল।
২. লিখিত পরীক্ষা
৩. মৌখিক ও Aptitude test
৪. চূড়ান্ত মেডিকেল
৫. ভেরিফিকেশন
এ ৫ টি ধাপের যেকোন ১টি ধাপে বাদ পড়লে পরের ধাপের স্বপ্ন শেষ।
------------------------------------
স্বপ্নযাত্রার প্রথমধাপ অর্থাৎ প্রাথমিক বাচাই নিয়ে কিছু নির্দেশনা।
এধাপে আপনাকে ৪টি শারিরীক সক্ষমতার মুখোমুখি হতে হবে।

০১. দৌড়ঃ- এখানে আপনাকে প্রায় ২০০ মিটার দৌড় দিতে হবে। প্রার্থীর সংখ্যাভেদে প্রতি ১০ জন থেকে ৩-৫ জন বাদ দেওয়া হয়। তাই এক্ষেত্রে প্রথম ৫ জনের মধ্যে থাকাই নিরাপদ।

০২. লং জাম্পঃ- প্রথম ধাপ সফলতার সাথে অতিক্রমের পর আপনাকে ১২ ফুট লং জাম্প দিতে হবে। এক্ষেত্রে ডিসকোলিফাইড যেন না হোন সর্তক থাকবেন।

০৩. হাই জাম্পঃ- দ্বিতীয় ধাপের পর আপনাকে ৪-৪.৫ ফুট হাই জাম্প দিতে হবে। এ বয়সে এটুকু জাম্প দিতে দিতে সমস্যা হতে পারে। তাই এসময়টুকুতে লং জাম্পের ভালো প্রস্তুতি নিবেন।

০৪. রোপ ক্লাইপিংঃ- ৩০ ফুট উচুঁতে মোটা রশি বেয়ে উপরে উঠতে হবে। সাহস আর বাহুতে শক্তি থাকলে এটা আপনার সমস্যা করতে পারবেনা।
-------------------------------------
এধাপগুলো সফলতার সাথে মোকাবেলার পর আপনার কাগজপত্র যাচাইকরে ০৩ টাকা মুল্যের আবেদনপত্র দেওয়া হবে। নির্দিষ্ট দিনে সকাল ৮.৩০ এর পরির্বতে সকাল ৮.০০ এর আগে লাইনে পৌচাবেন।

সুযোগ-সুবিধা:
১। শুরুতে প্রায় ত্রিশ হাজার টাকা বেতন + মামলা তদন্ত ভাতা ও টিএ, ডিএ + রেশন ও পোশাক + বিশেষ ইউনিট এর ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ভাতা।

২। যোগ্যতা থাকলে পদোন্নতি পেয়ে ASP/ Addl.SP/SP পর্যন্ত হওয়ার সুযোগ আছে।

৩। যোগ্যতা প্রমাণ দিয়ে প্রতিটি ১বছরের সেট মিশনে ৫০-৭০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয় করা সম্ভব। সাধারণত চাকরি জীবনে ৩টার বেশি মিশন পাওয়া যায় না।

৪। মিশন বা প্রশিক্ষনের সুবিধার্থে বিনা খরচে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্রমণের সুযোগ।

৫। সাধারণ মানুষ থেকে মন্ত্রী-এমপি পর্যন্ত যোগাযোগ ও প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে রাষ্ট্রপতির কার্যালয় পর্যন্ত বিচরণ করার সুযোগ পাবেন।

৫। এখানে চাকরির বৈচিত্র্য আছে। আপনি চাইলে ইউনিফর্ম পরে থানায় ব্যস্ততম জীবন-যাপন করতে পারেন অথবা পুলিশের অন্য ইউনিট-এ সিভিলের মতো এসি রুমে ৯টা-৫টা অফিস করতে পারেন।

৬।পারিবারিক ও সামাজিক নিরাপত্তা।

অসুবিধা:
১। চ্যালেঞ্জিং জব। সর্বদা বিচক্ষণ থাকতে হয়।

২। মাঝে মাঝে চরম বিরূপ পরিবেশে কাজ করতে হয়। আপনার সামান্য ভুলের কারণে অপূরণীয় ক্ষতি হতে পারে।

৩। আপনি সৎ হওয়া সত্বেও, কতিপয় লোক আপনার সমালোচনা করতে পারে।

পরবর্তী সুবিধা :
১। পূর্বে এসআই থেকে ইন্সপেক্টর(Popularly known as OC of a thana) এ প্রমোশন পেতে ১৫/১৬ বছর লেগে যেত। সরকারের আন্তরিকতায় বর্তমানে চাকরির মেয়াদ ৫ বছর ও ইন্সপেক্টরশীপ পাস করলেই প্রমোশন হয়ে যায়।

২। পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর টু আইজিপি পর্যন্ত পদের রাঙ্ক ব্যাজ এক ধাপ উন্নতি করার প্রক্রিয়া চলছে। আশা করি খুব শীঘ্রই হয়ে যাবে।

৩। মিশনে যাওয়ার সুবিধা।

পরীক্ষা পদ্ধতি:
১ম ধাপ: শারীরিক পরীক্ষা
২য় ধাপ: লিখিত পরীক্ষা-২২৫মার্ক:
পরীক্ষা হয় ৩ দিন।
মনস্তাত্বিক পরীক্ষা-২৫ মার্ক
বাংলা ও ইংলিশ-১০০ মার্ক
গনিত ও সাধারণ জ্ঞান-১০০ মার্ক।
বাংলা রচনা, ভাবসম্প্রসারন,
এককথায় প্রকাশ, বাগধারা ইত্যাদি
আসে। ইংলিশে paragraph, essay, application, grammar etc থেকে প্রশ্ন হয়। গনিত লাভ ক্ষতি, সুদ কষা, অংশীদারি, সরল অংকের চ্যাপ্টার
গুলো ভালো করে দেখতে পারেন।
সাধারন জ্ঞান সাম্প্রতিক প্রশ্ন গুলো একটু দেখবেন। মনে রাখবেন, সাধারণ জ্ঞান অবশ্যই written question
হবে।
৩য় ধাপ: ভাইভা-১০০ মার্ক।
৪র্থ ধাপ: মেডিকেল টেস্ট ও ভেরিফিকেশন।

সকল পরীক্ষা সফলতার সহিত পাস করলে প্রশিক্ষণ ও নিয়োগের জন্য চূড়ান্তভাবে মনোনীত হবেন।

পরিশেষে, মনে রাখতে হবে আপনার তদন্তের উপর একজন নিরপরাধ/অপরাধীর জীবন/মরন নির্ভর করবে। প্রত্যক্ষভাবে জনসেবা করা, চ্যালেঞ্জ গ্রহণের সৎ মন-মানসিকতা এবং সু-শৃংখলভাবে জীবন-যাপন করতে চাইলে বাংলাদেশ পুলিশে আপনাকে স্বাগতম।

আর সিরিয়াসলি পরীক্ষা দিতে চাইলে আজই পড়া শুরু করে দিন। বিগত বছরের প্রশ্নগুলো দেখে নিজের মতো করে একটি প্ল্যান করে পড়ুন।

সংগৃহীত

৪০তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি - ৯ম-১০ম শ্রেনীর বিজ্ঞান (২০১৮সালের) বই হতে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

৪০তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি 
৯ম-১০ম শ্রেনীর বিজ্ঞান (২০১৮সালের) বই হতে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। পযার্য়ক্রমে অধ্যায়ভিত্তিক দেয়া হয়েছে।যারা সংগ্রহ করতে পারেননি তাদের জন্য আজ আবার ১ম-১০ম অধ্যায় দেয়া হলো। (সংগৃহীত পোস্ট)
#১ম অধ্যায়(১-৬০)।
১।প্রাণীদেহে শুষ্ক ওজনের কতভাগ প্রোটিন - ৫০%।
২।খাদ্যের উপাদান - ৬টি।
৩।আমিষের গঠনের একক - অ্যামাইনো এসিড।
৪।মানবদেহে কয়ধরনের অ্যামাইনো এসিড রয়েছে - ২০ ধরনের।
৫।মানুষের প্রধান খাদ্য - শর্করা।
৬।পানিতে দ্রবনীয় ভিটামিন - B,C।
৭।ঢেকি ছাটা চাল ও আটার ভিটামিন থাকে - থায়ামিন।
৮।দৈনিক পানি পান করা উচিত - ২-৩ লিটার।
৯।ব্রাইন বলা হয় - লবনের দ্রবনকে।
১০।পুষ্টির ইংরেজী শব্দ - Nutrition।
১১।কোষ গঠনে সাহায্য ও নিয়ন্ত্রন করে - ভিটামিন ই ও লাইসিন।
১২।কার্বোহাইড্রেট C:H:O এর অনুপাত - ১:২:১।
১৩।খাদ্যের কোন উপাদানটি মিষ্টি স্বাদযুক্ত - শর্করা।
১৪।FRUIT SUGAR বলা হয় - ফ্রুকটোজকে।
১৫।অামিষের শতকরা নাইট্রোজেন পরিমান - ১৬%
১৬।অামিষের মৌলিক উপাদান কয়টি - ৪টি
১৭।ইলিশের প্রোটিন অাছে - ২০
১৮।মাছ থেকে কতভাগ প্রোটিন অাসে - ৮০ ভাগ।
১৯।অামিষের অভাবে হয় - ম্যারাসমাস রোগ।
২০।মহিষের দুধে শক্তির পরিমান - ১১৭ ক্যালরী।
২১।শক্তি উৎপাদক খাদ্য - শর্করা।
২২।ভিটামিন এভাবে রোগ - রাতকানা জেরপথ্যালমিয়া।
২৩।খাদ্যে ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায় - ২০ ধরনের।
২৪।ভিটামিন বি - ২০ প্রকার।
২৫।প্রাপ্ত বয়স্ক লোকের লৌহের প্রয়োজন - ৯গ্রাম।
২৬।খাদ্যের মধ্যে নিহিত শক্তির একক - কিলোক্যালরী।
২৭।Quetelet Index বলা হয় - BMI।
২৮।BMI- Body Mass index
২৯।দেহের চর্বি পরিমান নিদের্শক - BMI।
৩০।BMI- ওজন/(উচ্চতা)^২।
৩১।BMIএর অপর নাম - QLI।
৩২।বোরহানিতে পাওয়া যায় - ল্যাকটিক এসিড।
৩৩।ভিনেগার কী - অ্যাসেটিক এসিডের ৫% দ্রবন।
৩৪।তামাকে কোন পদার্থ থাকে - নিকোটিন, ক্যাফেইন।
৩৫।ধূমপান করার উপাদানটি নাম - Nicotina।
৩৬।সর্বপ্রথম এইডস চিহ্নিত হয় - আফ্রিকায়।
৩৭।পরিপোষক ইংরেজী শব্দ - Nurtrients।
৩৮।উৎপত্তিগত আমিষ - ২ প্রকার।
৩৯।মানবদেহে ওজনের মোট ক্যালসিয়াম - ২ভাগ।
৪০।মানবদেহে ওজনের মোট পানি - ৬০ থেকে ৭৫ভাগ।
৪১।মানবদেহে ফসফরাসের প্রয়োজন - ৫গ্রাম।
৪২।এসিডোমিস হয় - পানির অভাবে।
৪৩।মানুষের মৃত্যু হয় - ১০% পানির অভাবে।
৪৪।মানবদেহের বৃদ্ধির সময়সীমা - ২০ থেকে ২৪ বছর।
৪৫।পুষ্টি - ৪ প্রকার।
৪৬।এইডসের ভাইরাসের নাম - HIV।
৪৭।এ পযর্ন্ত অ্যামোইনো এসিডের সন্ধান পাওয়া গেছে - ২০ ধরনের।
৪৮।খাদ্যে ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায় - ২০।
৪৯।স্নেহ - ২ প্রকার।
৫০।বিজ্ঞান শব্দের অর্থ - বিশেষ জ্ঞান।
৫১।স্নেহে দ্রবনীয় - ভিটামিন A,D,E,K।
৫২।ফল পাকানোর জন্য দায়ী - ক্যালসিয়াম কার্বোইড।
৫৩।HIV অাক্রমন করে - রক্তে শ্বেতকনিকায় লিম্ফোসাইটকে।
৫৪।আমাশয় - ২ প্রকার।এমিবিক ও ব্যাসিলারি।
৫৫।ভাইরাস - প্রকৃত পরজীবী।
৫৬।ভাইরাসকে বলা হয় - অকোষীয় জীব।
৫৭।ছত্রাকে বলা হয় - মৃতজীবী জীব।
৫৮।অনুজীবকে বলা হয় -আদিজীব।
৫৯।প্রথম ব্যাকটেরিয়া দেখতে পান - বিজ্ঞানী অ্যান্টনি ফন লিউয়েন হুক।
৬০।ধূমপানের উপাদানটির বিজ্ঞানিক নাম - Nicotiana Tabacum।
#২য় অধ্যায়(১-৫০)।
১।পানির ঘনত্ব নির্ভরশীল - তাপমাত্রা উপর।
২।ভূ-পৃষ্টের মোট পানির শতকরা মিঠাপানি - ১ ভাগ।
৩।পানির ঘনত্ব সবচেয়ে বেশি - ৪ ডিগ্রী সে:।
৪।বিশুদ্ধ পানির ধর্ম - স্বাদহীন,বর্ণহীন,গন্ধহীন।
৫।কোন জলীয় দ্রবণ এসিডীয় হলে এর pH - ৬.৫।
৬।বিশুদ্ধ পানির pH - ৭।
৭।শুধু পানিতে জন্মায় - সিংগারা।
৮।ওষুধ তৈরিতে পানি বিশুদ্ধ করা হয় - পাতন প্রক্রিয়ায়।
৯।এসিডের পরিমান বাড়লে pH এর মান - কমে।
১০।ব্লিচিং পাউডারের সংকেত - Ca(OC1)C1।
১১।আমেরিকায় উত্তর ওহাইও অঙ্গরাজ্যের মরা হ্রদটি নাম - এরি।
১২।রামসায় চুক্তি হয় - ১৯৭১ সালে।
১৩।রামসায় কনভেনশন সংশোধন হয় - ১৯৮২ সালে।
১৪।গঙ্গা পানি বন্টন চুক্তি হয় - ১৯৭৭ সালে।
১৫।বুড়িগঙ্গা নদীর সাথে তুলনা করা হয় - এরি হ্রদের সাথে।
১৬।পানির স্ফুটনাঙ্ক - ৯৯.৯৮ ডিগ্রী সে:।
১৭।সমুদ্রের পানিকে বলে - Marine Water।
১৮।পানির অনুতে আছে - ২টি হাইড্রোজেন।
১৯।পৃথিবীর পানির মধ্যে শতকরা সমুদ্রের পানি - ৯০ ভাগ।
২০।পানির দ্রবীভূত অক্সিজেন মাত্রা ঠিক থাকে - সালোকসংশ্লেষনের মাধ্যমে।
২১।নদনদীর পানি - ক্ষারীয়।
২২।একলিটার বিশুদ্ধ পানির pH - ৭।
২৩।ত্বক ও ফুসফুসে ক্যান্সার সৃষ্টি করে - পারদ/U।
২৪।রক্ত শূন্যতা হয় - সীসার অভাবে।
২৫।রামসায় চুক্তিতে বাংলাদেশ সম্মতি জ্ঞাপন ও স্বাক্ষর করে - ১৯৭৩ সালে।
২৬।লোনা পানির ইংরেজী শব্দ - Saline Water।
২৭।নাব্যতা হ্রাসকালে ভূমিকা আছে - তেল।
২৮।pH কমলে প্রাণীদেহে হতে নিগৃত হয় - Ca।
২৯।ইলিশ মিঠা পানিতে আসে - প্রজনেন জন্য।
৩০।ইলিশ ডিম নষ্ট করে - লবণাক্ত পানিতে।
৩১।ভূ-গর্ভস্থ শতকরা লবণাক্ত পানির পরিমান - ৯৭ ভাগ।
৩২।বন্যার সময় পানি বিশুদ্ধকরন করার জন্য ব্যবহার করা হয় - সোডিয়াম হাইপোক্লোরাইড।
৩৩।পানির মধ্যে ধূলিকনা পৃথক করার প্রক্রিয়া - পরিস্রাবন।
৩৪।খাওয়ার পানির জন্য সহজলভ্য প্রক্রিয়া - স্ফুটন।
৩৫।কঠিন বর্জ্য পঁচতে সময় লাগে - ১ থেকে ২ দিন।
৩৬।সম্প্রতি তেজস্ক্রিয়া ঘটেছে - জাপানের ফুকুশিমা।
৩৭।মানুষ বিকলাঙ্গ হয় - পারদের অভাবে।
৩৮।এরি হ্রদকে মরা হ্রদ ঘোষণা করা হয় - ১৯৬০ সালে।
৩৯।প্রাণীশূন্য নদীকে বলে - Dead Lake।
৪০।ETP - Effluent Treatment Plant।
৪১।ঢাকা শহরে প্রতিনিয়ত কঠিন পদার্থ উৎপন্ন হয় - ৫০০ মে: টন।
৪২।বাংলাদেশ ভারত হতে গঙ্গা পানির ন্যায্য হিসাবে পাওয়ার চুক্তি হয় - ১৯৯৬ সালে।
৪৩।ভারত সরকার গঙ্গা পানির গতিপথ পরিবর্তন করে - ১৯৭৫ সালে।
৪৪।মানুষের মৌলিক অধিকার - ৫টি।(আমরা জানি, মৌলিক অধিকার ৬টি।কিন্তু ৯ম শ্রেনীর বইয়ে ৫ টি।আবার ৩য় শ্রেনীর বইয়ে ৬টি)।
৪৫।রামসার কনভেনশন সংশোধন হয় - ২ বার।
৪৬।অম্লীয় পানির pH - ৪।
৪৭।বরফের গলনাঙ্ক - ০ ডিগ্রী সে:।
৪৮।১ কিউসেক পানির ভর - ১০০০ কেজি।
৪৯।পানির অনুর আকৃতি - কৌণিক।
৫০।পানি একটি - উভধর্মী পদার্থ।
#৩য় অধ্যায়(১-৫০)।
১।রক্তে লোহিত কণিকা সঞ্চিত থাকে - প্লীহাতে।
২।অনুচক্রিকার গড় আয়ু - ৫ থেকে ১০ দিন।
লোহিত রক্ত কণিকায় গড় আয়ু - ১২০ দিন।
শ্বেতকণিকার গড় আয়ু - ১-১৫ দিন।
৩।লোহিত কণিকার আকৃতি - চ্যাপ্টা।
৪।সর্বজন দাতা গ্রুপ - O+ গ্রুপ।
৫।রক্তে অ্যান্টিজেন নেই - O+ গ্রুপে।
৬।হৃৎপিন্ডের আকৃতি - ত্রিকোণাকার।
৭।রক্তে কিসের পরিমান বেশি থাকা শরীরে জন্য উপকারি - HDL।
৮।রক্তে কোলেস্টেরল স্বাভাবিক পরিমান - ১০০-২০০mg/dl।
৯।মানুষের স্বাভাবিক রক্তচাপ -১২০/৮০ mmHg।
১০।মানুষের মোট ওজন শতকরা - ৮% রক্ত।
১১।ধমনির রক্তের pH - ৭.৪।
১২।পূর্ণবয়স্ক মানুষের রক্তের পরিমান - ৫-৬ লিটার।
১৩।রক্ত গঠিত - যোজক টিস্যু।
১৪।রক্তের প্রধান উপাদান - লৌহ।
১৫।রক্তের প্রধান উপাদান - ২টি।
১৬।রক্তে রেচন পদার্থ - ইউরিয়া।
১৭।রক্ত লাল দেখায় - হিমোগ্লোবিন থাকায়।
১৮।দেহের প্রহরী - শ্বেতকণা।
১৯।রক্তে লিম্ফোসাইটের পরিমান - ২০-৪৫%।
২০।হিমোগ্লোবিন থাকে না - শ্বেতকণিকায়।
২১।রক্তে অ্যান্টিজেন থাকে - ২টি।
২২।AB গ্রুপে রক্তের মানুষ - ৩%।
২৩।হৃৎপিন্ড বেষ্টনকারী পদার্থের নাম - পেরিকার্ডিয়াম (২ স্তর)।
২৪।নিলয়ের অপর নাম - ভেন্টিকল।
২৫।একটি হৃৎস্পন্দনের সময় লাগে ০.৮ সেকেন্ড।
২৬।হৃৎপিন্ড প্রসারণকে বলা হয় - ডায়াস্টোল।
২৭।প্রতিমিনিটে হার্টবিটকে বলে - ডাব।
২৮।কার্ডিয়াক চক্রের ধাপ - ৪টি।
২৯।LDL এর পূর্ণরুপ -Low Density Lipoprotein।
৩০।সমগ্র রক্তে -৫৫% রক্তরস, ৪৫% রক্তকণিকা।
৩১।রক্তের তরল অংশকে বলে - প্লাজমা।
৩২।রক্ত কণিকা - ৩ প্রকার।
৩৩।রক্ত রসের -১০% জৈব ও অজৈব।
৩৪।রক্তরস আলাদা করলে রক্তের রং হবে - হালকা হলুদ।
৩৫।প্লেটলেট অর্থ - অণুচক্রিকা।
৩৬।ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হলে কোন অবস্থার সৃষ্টি হয় - পারপুরা।
৩৭।মানুষের রক্তের A গ্রুপ শতকরা - ৪২%।
৩৮।মানুষের রক্তের B গ্রুপ শতকরা - ৯%।
৩৯।মানুষের রক্তের AB গ্রুপ শতকরা - ৩%।
৪০।মানুষের রক্তের O+ গ্রুপ শতকরা - ৪৬%।
৪১।RBC - Red Blood cell।
৪২।রেসাস ফ্যাক্টরের সংকেত - Rh।
৪৩।রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করে - ডা. কার্ল ল্যান্ডস্টেইনার (১৯০০ সালে)।
৪৪।Rh ফ্যাক্টরের নামকরন করা হয় - বানর দ্বারা।
৪৫।হৃৎপিন্ডের অবস্থান - দুই ফুসফুসের মাঝে।
৪৬।হৃৎপিন্ডের ওজন - ৩০০ গ্রাম।
৪৭।হৃৎপিন্ডের সংকোচনকে বলা হয় - সিস্টোল।
৪৮।মানুষের হৃৎপিন্ড প্রকোষ্ঠ - ৪ ভাগে।
৪৯।রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা - ৮০ থেকে ১২০ গ্রাম/ডেসি.লিটার।
৫০।HDL এর পূর্ণরুপ -High Density Lipoprotein।
#৪র্থ অধ্যায়(১-৪০)।
১।বয়:সন্ধিকালের সময়কাল - ১১ হতে ১৯ বছর।
২।টেস্টটিউবের প্রথম সফলতা পায় -ড.প্যাট্রিক স্টেপটো ও ড. রবার্ট এডওয়ার্ডের, ইংল্যান্ড।
১৯৭৮ সালে ২৫ জুলাই ১১.৫৭ মিনিটে লুইস জয় ব্রাউন নামের এক বেবি।
৩।শৈশবকাল বলা হয় - ৫ বছর পর্যন্ত।
৪।মানুষের শরীরে বিভিন্ন পরিবর্তনের জন্য দায়ী - ২টি।
৫।ছেলেদের শারীরিক ও মানসিক পরিবর্তনের জন্য দায়ী - টেস্টোস্টেরন।
মেয়েদের শারীরিক ও মানসিক পরিবর্তনের জন্য দায়ী - ইস্ট্রোজেন ও প্রজেস্টেরন।
৬।প্রথম টেস্টিটিউব বেবি উদ্ভাবন করন - পেট্রুসি(১৯৫৯ সালে,ইটালিতে)।
৭।লিঙ্গ নির্ধারক ক্রোমোজোম সংখ্যা - ১ জোড়া।
৮।স্ত্রী লিঙ্গ নির্ধারক ক্রোমোজোম সংখ্যা - XX। 
পুরুষের লিঙ্গ নির্ধারক ক্রোমোজোম সংখ্যা -XY।
৯।মানব কোষে ক্রোমোজোম সংখ্যা - ২৩ জোড়া।
১০।পৃথিবীর উৎপত্তি ও জীনের উৎপত্তি ঘটনা প্রবাহকে বলে - রাসায়নিক বিবর্তন।
১১।সর্বপ্রথম জীনের উৎপত্তি - সমুদ্রের পানিতে।
১২।সংযোগকারী জীব বলা হয় - প্লাটিপাস (সরীসৃপ ও স্তন্যপায়ী প্রাণির মধ্যে)।
১৩।বয়:সন্ধিকালে কোন হরমোন প্রভাব নেই - ইনসুলিন।
১৪।বয়:সন্ধিকালে পরিবর্তনের জন্য দায়ী - হরমোন।
১৫।বয়:সন্ধিকালে পরিবর্তন প্রধানত - ৩ প্রকার।
১৬।সর্বপ্রথম জন্ম নেয়া টেস্টিটিউব বেবি বাঁচে - ২৯ দিন।(জন্ম প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ইটালির বিজ্ঞানী ড.পেট্রুসি,১৯৫৯ সালে।)
১৭।বাংলাদেশের জন্ম নেয়া প্রথম ৩টি টেস্টিটিউব বেবির নাম - হিরা,মনি ও মুক্তা (২০০১ সালে)।
১৮।মানুষের অটোসোম - ৪৪ টি।
১৯।জীবাশ্ম আবিষ্কার করে - জেনোফেন।
২০।নিউক্লিক এসিড সৃষ্টিতে ভূমিকা রয়েছে - অতি বেগুনি রশ্মি।
২১।পৃথিবী একটি জ্বলন্ত গ্যাসপিন্ড ছিল - ৪৫০ কোটি বছর।
২২।সর্বপ্রথম কে "ইভোলিউশন" শব্দটি ব্যবহার করেন - হার্বাট স্পেনসার।
২৩।প্রাণ সৃষ্টিতে শুরুতে সর্বপ্রথম যৌগটি তৈরি হয় - অ্যামাইনো এসিড।
২৪।সময়ের সাথে নতুন প্রজাতির সৃষ্টিকে বলে - জৈব বিবর্তন।
২৫।অসম্পূর্ণ বিভক্ত নিলয় থাকে - সরীসৃপের।
২৬।উভচরের (ব্যাঙ) হৃৎপিন্ড প্রকোষ্ঠের সংখ্যা - ৩।
পাখির হৃৎপিন্ড প্রকোষ্ঠের সংখ্যা - ৪।
২৭।মানবদেহে লুপ্তপ্রায় অঙ্গটি - ককসিস।
২৮।"বায়োলজি" শব্দের প্রতিষ্ঠাতা" - ল্যামার্ক।
২৯।বংশগতির মতবাদ দেন - মেন্ডেল।
বংশগতির বিদ্যার জনক - গ্রেগর জোহান মেন্ডেল।
৩০।মানবদেহে নিষ্কিয় অঙ্গটি - অ্যাপেন্ডিক্স।
৩১।"Origin of species by meanse of natural selection" বইটির লেখক - চালর্স ডারউইন (১৮৫৯ সালে)।
(জন্ম -১৮০৯ সালে, ইংল্যান্ড সাসবেরি এবং
মৃত্যু-১৮৮২ সালে)।
৩২।স্যামন মাছ প্রজননের ঋতুতে ডিম পাড়ে - ৩ কোটি।
৩৩।"ফিলোসোফিক জুওলজিক" বইটির লেখক - ল্যামার্ক (১৮০৯ সালে)।
৩৪।"প্রাকৃতিক নির্বাচনে দায় প্রজাতির উদ্ভব" - গ্রন্থেরটি লেখক - চালর্স ডারউইন।
৩৫।ভাইরাস সৃষ্টি হয় - প্রোটোজোয়া থেকে।
৩৬।জৈব বিবর্তনের জনক - চার্লস ডারউইন।
৩৭।পৃথিবীর উদ্ভিদ প্রজাতির সংখ্যা - প্রায় ৪ লাখ।
৩৮।তিমি সাতাঁরে জন্য ব্যবহার করে - ফ্লিপার।
৩৯।"অনটোজেনি রিপিটস ফাইলোজেনি" কার ভাষ্য - হেকেল।
৪০।একটি সরিষা গাছ হতে বছরে বীজ জন্মায় - ৭,৩০,০০০।
এক জোড়া হাতির থেকে উদ্ভূত সবগুলো হাতি বেঁচে থাকলে ৭৫০ বছরে হাতির সংখ্যা হবে ১ কোটি ৯০ লাখ।
#৫ম অধ্যায়(১-৩৫)।
১।গাড়ির দুইপাশে ও পিছনে হতে কয়টি দর্পণ ব্যবহার হয় - ৩টি।
২।চাঁদ দিগন্তে দিকে লাল দেখায় কেন - বায়ুমণ্ডলীয় প্রতিসরণের জন্য।
৩।+2D লেন্সটির ফোকাস দূরত্ব - ০.৫ মি।
-2D লেন্সটির ফোকাস দূরত্ব - ৫০ সে.মি।
৪।লেন্সের ক্ষমতা এস. আই একক - রেডিয়ান/মিটার।
৫।শিশুর স্বাভাবিক চোখের স্পষ্ট দৃষ্টির নূন্যতম দূরত্ব - ৫ সেমি।
৬।চোখের কোন অংশে উল্টো প্রতিবিম্ব গঠিত হয় - রেটিনা।
৭।বয়স্ক মানুষের স্বাভাবিক চোখের স্পষ্ট দৃষ্টির নূন্যতম দূরত্ব - ২৫ সেমি।
৮।অাবছা আলোয় সংবেদনশীল হয় - রড।
৯।রড অনুভূতি ও রঙের পার্থক্য নির্ধারণে সাহায্য করে - কোণ।
১০।আপতিত রশ্মি ও অভিলম্বের মধ্যবর্তী কোণকে বলে - আপতন কোণ।
১১।সংকট কোনের ক্ষেত্রে প্রতিসরণ কোণ - ৯০ ডিগ্রী।
১২।ঘন মাধ্যমে আলোর বেগ - কমে যায়।
১৩।উভয় লেন্সের বক্রতার ব্যাসার্ধ ও কেন্দ্র - ২টি।
১৪।উভয় লেন্সের আলোক কেন্দ্র - ১টি।
১৫।অবতল লেন্সের অপর নাম - অপসারী লেন্স।
১৬।আলো এক প্রকার - শক্তি।
১৭।লেন্স প্রধানত - ২ প্রকার।
১৮।চোখ কাজ করে - অভিসারী লেন্সের মতো।
১৯।চোখের ত্রুটি - ৪ ধরনের।
২০।চোখ ভালো রাখার জন্য বেশি প্রয়োজন - প্রোটিন যুক্ত খাবার।
২১।যে মসৃণ তলে আলোর নিয়মিত প্রতিফলন ঘটে তাকে - দর্পণ বলে।
২২।নিরাপদ ড্রাইভিং এর শর্ত - নিজ গাড়ির আশে পাশে সর্বদা খেয়াল রাখা।
২৩।পাহাড়ি রাস্তার বিপদজনক বাঁকে সমতল দর্পণ ব্যবহার হয় - ৯০ ডিগ্রী।
২৪।আলোর প্রতিসরণের সূত্র - ২ টি।
২৫।মানুষের দর্শনানুভুতির স্থায়িত্বকাল - ০.১ সেকেন্ড।
২৬।চোখের আলোক সংবেদন আবরণ - রেটিনা।
২৭।দর্পণ বিশেষভাবে ব্যবহার হয় - নিরাপদ ড্রাইভিং এ।
২৮।আলোর প্রতিসরণ ব্যবহার হয় - এক্স-রে তে।
২৯।চোখের রেটিনার রং - গোলাপি।
৩০।চোখের উপাদান নয় - আইভ্রু।
৩১।পানিতে নৌকার বৈঠা বাঁকা দেখা যাওয়ার কারন - আলোর প্রতিসরণের কারনে।
৩২।স্বাভাবিক চোখের দূরবিন্দুর দূরত্ব - অসীম।
৩৩।+1D ক্ষমতা লেন্সের ফোকাস দূরত্ব -100cm উত্তল।
৩৪।বায়ু সাপেক্ষ কাচের প্রতিসরণাঙ্ক - ১.৫।
৩৫।রাস্তার বাতিতে ব্যবহার হয় - উত্তল দর্পণ।
#৬ষ্ঠ অধ্যায় (১-২০)।
১।প্রাকৃতিক পলিমার - রাবার।
২।ভিনাইল ক্লোরাইড নামক মনোমার থেকে তৈরি হয় -পি ভি সি পাইপ।
৩।কৃত্রিম পলিমার - পলিথিন।
৪।প্যারাসুটের কাপড় তৈরিতে ব্যবহার - নাইলন।
৫।আলফা কী - পশম।
৬।প্লাষ্টিক শব্দের অর্থ - সহজে ছাঁচযোগ্য।
৭।পলিথিনের সংকেত -
৮।পলিমারের ক্ষুদ্র অনুকে বলে - মনোমার।
৯।পলিমার শব্দটি - গ্রীক।
১০।গ্রীক শব্দ "মেরোস" এর অর্থ - অংশ।
১১।মানুষের চুলে আর নখে থাকে - কেরাটিন প্রোটিন।
১২।তন্তুর রানী - রেশম।
১৩।চেল্লার অপর নাম - পিল।
১৪।জন্মদিনে ব্যবহারিত বেলুনে দ্রবীভূত হয় - বেনজিন।
১৫।রাবার সাধারণত কোন ধরনের হয় - হালকা বাদামি।
১৬।"পলি" অর্থ - অনেক।
১৭।উৎস অনুযায়ী পলিমার - ২ ভাগে ভাগ করা যায়।
১৮।আমরা যে পলিথিন ব্যবহার করি তা - "ইথিলিন" নামক মনোমার হতে তৈরি পলিমার।
১৯।তন্তু - ২ প্রকার।
২০।প্রায় ৪০ জাতের মেষ হতে পশম তৈরি হয় - ২০০ প্রকার।
#৭ম অধ্যায়(১-৫০)।
১।ভিনেগারের সংকেত - (CH3COOH)।
২।শক্তিশালী এসিড - সালফিউরিক এসিড,নাইট্রিক এসিড,হাইড্রোক্লোরিক এসিড।
৩।এসিড নীল লিটমাসকে কোন রং এ পরিবর্তন করে - লাল।
৪।লাল লিটমাস কাগজকে ক্ষারের মধ্যে ডুবালে কোন রং হবে - নীল।
৫।হিস্টামিনকে অকার্যকর করে - ভিনেগার।
৬।ভিনেগারের অপর নাম - এসিটিক এসিড,সিরকা।
৭।টেস্টিংসল্ট যে নামে পরিচিতি - মনোসোডিয়াম গ্লুটামেট।
৮।জৈব এসিড - (CH3COOH)।
৯।অম্লীয় দ্রবণের জন্য সঠিক - pH<7।
১০।আমাদের ধমনির রক্তের pH -7.4।
১১।ক্ষারক - (NaOH)।
NaOH (সোডিয়াম হাইড্রোক্সাইড) ক্ষারক। তেমনি ১২ নাম্বার Ca(OH)2(ক্যালসিয়াম হাইড্রোঅক্সাইড) ও ক্ষারক। যে সকল যৌগে OH( হাইড্রোক্সাইড) থাকে তার সব ই ক্ষারক।
যেমন: Al(OH)3 (এলুমিনিয়াম হাইড্রোঅক্সাইড)।Mg(OH)2 (ম্যাগনেসিয়াম হাইড্রোক্সাইড)।
১২।স্লাক লাইম - [Ca(OH)2]।
১৩।পিঁপড়া কামরে নি:সৃত হয় - ফরমিক।
১৪।মৌমাছি হুল ফুটালে ব্যবহার করা হয় - জিংক কার্বোনেট (ZnCO3)। 
১৫।চামড়া ট্যানিং করতে ব্যবহার হয় - খাবারের লবন।
১৬।জীবানুনাশক হিসেবে ব্যবহার হয় - (CuSO4)। 
১৭।অ্যামোনিয়া নাইট্রেট তৈরি হয় - HNO3 থেকে।
১৮।NaCl+HCl= NaOH(লবন)+H2O( পানি)
১৯।কাপড় কাচার সোডার সাথে থাকে - ১০ অনু পানি।
২০।আইপিএস এর অত্যাবশ্যকীয় উপাদান - সালফিউরিক এসিড (H2SO4)।
২১।ভিনেগার সংকেতে থাকে - ৪টি হাইড্রোজেন।
২২।বেকিং সোডার সংকেতে হাইড্রোজেন পরমানুর সংখ্যা - ১টি।
২৩।মানব দেহের জন্য ক্ষতিকারক এসিড - হাইড্রোক্লোরিক।
২৪।নির্দেশক হলো - রাসায়নিক পদার্থ।
২৫।নির্দেশক - ৪ ধরনের।
২৬।রক্তে pH এর মান কতটুকু পরিবর্তিত হলে মৃত্যু হতে পারে - 0.4।
২৭।এসিডের পরিমান বাড়লে, pH এর মান - কমে।
২৮।পাকস্থলী pH কত কম বা বেশি হলে বদহজম সৃষ্টি হয় - 0.5।
২৯।শিশুদের ত্বকের pH এর মান - 7।
৩০।আমাদের পাকস্থলীর খাদ্য হজমের জন্য দরকারি pH - 2।
৩১।ক্যালমিনের মূল উপাদান - (ZnCO3)।
৩২।টুথপেস্টের pH সাধারণত - ৯ হতে ১১ মধ্যে হয়।
৩৩।অ্যান্টাসিড হলো - ক্ষার।
৩৪।প্রশমন কিক্রিয়ার মান হয় - ৭।
৩৫।কপার সালফেটকে বলা হয় - তুঁত।
৩৬।অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট - সার।
৩৭।দইয়ে ও বোরহানিতে থাকে - ল্যাকটিক এসিড।
৩৮।বাংলাদেশ নারী ও শিশু নির্যাতন আইন অনুযায়ী এসিড ছোড়ার শাস্তি - মৃতুদন্ড (১৯৯৫ সালের আইন)।
৩৯।জবা ফুলের রং এসিডের মধ্যে উৎপন্ন করে - লাল রং।
৪০।জবা ফুলের রং ক্ষারকের মধ্যে উৎপন্ন করে - নীল রং।
৪১।আমাদের জিহ্বার লালায় কার্যকরী pH - 6.6।
৪২।নিরপেক্ষ জলীয় দ্রবণ pH এর মান - 7।
৪৩।আমাদের ত্বকের pH এর মান - 4-6।
৪৪।টেস্টিং সল্ট ব্যবহার করা হয় - খাবার স্বাদ বৃদ্ধির জন্য। 
৪৫।কাপড় কাঁচার মূল উপাদান - সোডিয়াম স্টিয়ারেট।
৪৬।দূর্বল এসিড - এসিটিক এসিড, সাইট্রিক এসিড, অক্সালিক এসিড।
৪৭।শক্তিশালী এসিড - সালফিউরিক এসিড, নাইট্রিক এসিড, হাইড্রোক্লোরিক এসিড।
৪৮।চিনির রাসায়নিক নাম -সুক্রোজ।
৪৯।ব্লিচিং পাউডার-Ca(OCl)Cl
ফিটকিরি-K2SO4.Al2(SO4)3.24H2O
এই দুইটি রাসায়নিক পদার্থ পানি বিশুদ্ধ করনে ব্যবহার করা হয়।
৫০।নির্দেশক হলো অই সকল রাসায়নিক পদার্থ যারা নিজেদের রঙ পরিবর্তনের মাধ্যমে কোনো পদার্থ এসিড, ক্ষারক না নিরপেক্ষ তা নির্দেশ করে। যেমন: লিটমাস পেপার, মিথাইল অরেঞ্জ, মিথাইল রেড, ফ্যানফথেলিন।
#সংকেতসমূহ (১-৩০)
১।এসিটিক এসিড - (CH3COOH)।
২।সাইট্রিক এসিড - (C6H8O7)।
৩।অক্সালিক এসিড - (HOOC-COOH)।
৪।সালফিউরিক এসিড - (H2SO4)।
৫।নাইট্রিক এসিড - (HNO3)।
৬।হাইড্রোক্লোরিক এসিড - (HCl)।
৭।কার্বোনিক এসিড - (H2CO3)।
৮।তুতের - (CoSO4.5H2O)। 
৯।অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট এসিড - (NH4NO3)।
১০।অ্যামোনিয়াম সালফেট এসিড - ((NH4)2SO4)।
১১।অ্যামোনিয়াম ফসফেট - ((NH4)3PO4)।
১২।পটাসিয়াম স্টেয়ারেট এসিড - (Cl7H35COOKa)। 
১৩।ফসফরিক এসিড - (H3PO4)।
১৪।জিংক কার্বোনেট এসিড - (ZnCO3)।
১৫।চুনাপাথর - (CaCO3)।
১৬।ম্যাগনেসিয়াম হাইড্রোক্সাইড এসিড - (Mg(OH)2)।
১৭।অ্যালুমিনিয়াম হাইড্রোক্সাইড এসিড - (Al(OH)3)।
১৮।খাবার সোডা - (NaHCO3)।
১৯।ক্যালসিয়াম কার্বোনেট এসিড - (CaCO3)।
২০।সিলভার সালফেট - (Ag2SO4)।
২১।মারকিউরিক সালফেট এসিড - (HgSO4)।
২২।মারকিউরিক ক্লোরাইড এসিড - (AgCl)।
২৩।সোডিয়াম ক্লোরাইড - (NaCl)।
২৪।সোডিয়াম স্টেয়ারেট এসিড - (Cl7H35COONa)।
২৫।সোডিয়াম কার্বোনেট এসিড - (Na2CO3)।
২৬।কপার সালফেট এসিড - (CuSO4)।
২৭।পটাসিয়াম নাইট্রেট এসিড - (KNO3)।
২৮।ম্যাগনেটাইট - (Fe3O4)
২৯।কোয়ার্টজ - (SiO2)
৩০।জিপসাম - (CaSO4.2H2O)।
#জিপসামের 2 ও তুতের মাঝখানের 5 বাদে সবসংখ্যাগুলো একটু নিচে হবে।
#৮ম অধ্যায়(১-৪০)।
১।হিউমাস তৈরি হয় - মৃত গাছপালা আর প্রাণীর দেহাবশেষ থেকে।মাটিতে বিদ্যমান কালচের রংয়ের জৈব পদার্থ।
২।মাটিতে বিদ্যমান পানির পরিমান - ২৫%।
৩।মাটিতে pH কত হলে গম উৎপাদনের পরিমান সবচেয়ে বেশি হয় - ৫-৬।
৪।কোন মাটির কণা সবচেয়ে বড় হয় - বালু মাটির।
৫।মাটির গঠন অনুযায়ী জৈব পদার্থের শতকরা পরিমান - ৫%।অজৈব - ৪৫%,বায়বীয় ২৫%,পানি ২৫%।
৬।কোন মাটির পানি ধারণ ক্ষমতা সবচেয়ে বেশি - পলি মাটির।
৭।মাটির বৈশিষ্ট্য উপর ভিত্তি করে মাটি - ৪ প্রকার।
৮।চেরনোবিল দুর্ঘটনার কারন ছিল - তৈজস্ক্রিয় পদার্থ।
৯।সিমেন্ট ও প্লাস্টার অব প্যারিস তৈরির কাঁচামাল - জিপসাম।
১০।সবচেয়ে নরম খনিজ - ট্যালক।
১১।ফসল চাষাবাদের জন্য খুবই উপযোগী - দো-আঁশ মাটি।
১২।প্রকৃৃতিতে খনিজ পদার্থ পাওয়া গেছে - ২৫০০ ধরনের।
১৩।সিএনজি এর মূল উপাদান - মিথেন গ্যাস।
১৪।পেট্রোলিয়াম ব্যবহার হয় - আলকাতরা তৈরিতে। 
১৫।কয়লায় কার্বনের পরিমান - অ্যানথ্রাসাইট-৯৫%, বিটুমিনাস-৫০ থেকে ৮০%, লিগনাইট - ৫০%।
১৬।সবচেয়ে পুরোনো কয়লা - অ্যানথ্রাসাইট।
১৭।ইউরিয়ার সারের কাঁচামাল হিসেবে প্রাকৃতিক গ্যাসের ব্যবহার - ২১ ভাগ।
১৮।বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রাকৃতিক গ্যাসের ব্যবহার - ৫১ ভাগ।
১৯।শিল্প কারখানায় প্রাকৃতিক গ্যাসের ব্যবহার - ২২ ভাগ।
২০।বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে জ্বালানি হিসেবে প্রাকৃতিক গ্যাসের ব্যবহার - ১ ভাগ।
২১।বাসা বাড়িতে রান্নার প্রাকৃতিক গ্যাসের ব্যবহার - ১১ ভাগ।
২২।মাটির কোন স্তরে উদ্ভিদ ও প্রানীর পচন শুরু হয় - হরাইজোন A।
২৩।সবচেয়ে কঠিন খনিজ - হীরা।
২৪।কোয়ার্টজের অপর নাম - সিলিকন ড্রাই অক্সাইড (SiO2)।
২৫।কার্বনের রুপভেদ - ২টি।
২৬।পেট্রোলিয়ামকে পরিশোধনের জন্য আংশিক পাতন প্রক্রিয়ার তাপমাত্রা ব্যবহার হয় - ৪০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
২৭।মাটিতে বিদ্যমান বায়বীয় পদার্থের পরিমান - ২৫%।
২৮।মাটির নিরপেক্ষ হলে এর pH মান - ৭।
২৯।মাটির pH এর মান কত হলে জব উৎপাদন সর্বোচ্চ হয় - ৮।
৩০।মাটিতে চুন যোগ করা হয় - pH বাড়াতে।
৩১।ধাতব মুদ্রা তৈরিতে ব্যবহার হয় - Ag।
৩২।ট্যালকম পাউডারে ব্যবহার হয় - Talc।
৩৩।আমাদের দেশে জ্বালানী হিসেবে প্রাকৃতিক গ্যাস ব্যবহার হচ্ছে - ২০০৩ সাল হতে।
৩৪।কয়লা ৩ প্রকার - অ্যানথ্রাসাইট,লিগনাইট, বিটুমিনাস।
৩৫।কয়লা উত্তোলনের পদ্ধতি - ২ টি।
৩৬।প্রাকৃতিক গ্যাসের শতকরা সিস্টেম লস হয় - ৫ ভাগ।
৩৭।ওয়াটার প্রুফ দ্রব্য প্রস্তুতে ব্যবহার হয় - বিটুমিন।
৩৮।CNG অর্থ - Compressed Natural Gas।
৩৯।মাটির ২য় স্তর - হরাইজোন বি / সাবসয়েল।
৪০।মাটির ৩য় স্তর - হরাইজোন সি।
মাটির ৪র্থ স্তর - হরাইজোন ডি।
#৯ম অধ্যায়(১-৪০)।
১।অ্যানথাক্স রোগ হয় - গবাদিপশুর।
২।জলবায়ু পরিবর্তনের কারনে বাংলাদেশের জীববৈচিত্র্য ধ্বংস হয় যাবে - ৩০%।
৩।সামুদ্রিক প্রবালে জীবনযাপনের উপযোগী তাপমাত্রা - ২২-২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
৪।সমুদ্রের পানি ২ মিটার বাড়লে বাংলাদেশের যে পরিমান এলাকা পানির নিচে যাবে - ১/১০ অংশ।
৫।জলবায়ু পরিবর্তনের প্রধান কারন - উষ্ণতা বৃদ্ধি।
৬।২১০০ সালের মধ্যে পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা বাড়তে পারে - ১.১-৬.৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
৭।বাংলাদেশের সবচেয়ে শক্তিশালী সাইক্লোণ আঘাত হানে - ১৯৯১ সালে (২২৫ কি.মি/ঘণ্টায়)।
৮।টর্নেডো শব্দটি এসেছে - স্প্যানিশ ভাষা হতে (দৈর্ঘ্য - ৫-৩০ কি.মি)।
৯।ভূমিকম্পের মাত্রা পরিমাপক যন্ত্রের নাম - রিখটার স্কেল।
১০।খাদ্য ঘাটতির কারনে প্রতিবছর খাদ্য আমদানি করতে হয় - ২ মিলিয়ন মেট্রিক টন।
১১।যে রাসায়নিক দ্রব্য বাতাশে ছড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ কমানো যায় - সিলভার আয়োডাই (AgI)।
১২।সুনামি - জাপানি শব্দ।
১৩।সাইক্লোন তৈরি হতে সাগরের তাপমাত্রা প্রয়োজন - ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
১৪।আমেরিকাতে ঘূর্ণিঝড়কে বলে - হারিকেন।
দূরপ্রাচ্যের দেশগুলো ঘূর্ণিঝড়কে বলে - টাইফুন।
১৫।বাতাশে অক্সিজেন ছাড়া মানুষ বাঁচতে পারে - ৪০-৫০ সেকেন্ড।
১৬।গত ১০০ বছরে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে - ০.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
১৭।ভূমিকম্পের ফলে বাংলাদেশের যে নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয় - ব্রহ্মপুত্র।
১৮।জীবানু জন্মানোর সহায়ক তাপমাত্রা - ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
১৯।সমুদ্রের পানির উচ্চতা ৪৫ সে.মি বাড়লে সুন্দরবন তলিয়ে যাবে - ৭৫%।
২০।২০১০ সেন্টমার্টিন দ্বীপের প্রবাল বিলীন হয়ে যায় - ৭০ ভাগ।
২১।বাংলাদেশের নদীর মধ্যে ভারত,নেপাল,ভুটানে উৎপত্তি লাভ করছে - ৫৮ টি।
২২।বাংলাদেশের একমাত্র ম্যানগ্রোভ বন - সুন্দরবন।
২৩।বেশি প্রবাল পাওয়া যায় - সেন্টমার্টিনে।
২৪।২০৫০ সালে লবণাক্ততার পরিমান হবে - ১৬%।
২৫।IPCC- Intergovernmental Panel on Climate Change.
২৬।জলবায়ু প্রভাব সম্পর্কিত IPCC সংস্থার মূল্যায়ন রিপোর্টির নাম - AR4।
২৭।বিশ্বের জনসংখ্যা - ৬.৬ বিলিয়ন।
২৮।কত সালের বন্যায় মানুষের দুভির্ক্ষ দেখা দেয় - ১৯৭৪ সালের।
২৯।El-nino শব্দটি সম্পর্কিত - খরার সাথে।
৩০।বাংলাদেশে ভয়াবহ খরা হয় - ১৯৭৮-৭৯ সালে।
৩১।খরার অন্যতম কারন - গভীর নলকূপ স্থাপন করা।
৩২।"সিডর" শব্দের অর্থ - চোখ।
বাংলাদেশে আঘাত হানে -২০০৭ সালে।
৩৩।"Tornado" শব্দের অর্থ - বজ্রঝড়।
"Kyklos" শব্দের অর্থ - সাপের কুন্ডলী।
৩৪।সুনামীকে পৃথিবীর কত নম্বর প্রাকৃতিক দূর্যোগ বলা হয় - ৩য়।
৩৫।বাংলাদেশ সুনামীতে ক্ষতিগ্রস্ত হন - ১৯৬২ সালে ২ এপ্রিল।
৩৬।pH এর মান কত হলে মাছের বেশিরভাগ ডিম নষ্ট হয়ে যায় - ৫ এর কম।
৩৭।পানিতে এসিড থাকলে pH এর মান হয় - ৭ এর কম।
৩৮।"Disaster" শব্দের অর্থ - দুর্যোগ।
৩৯।বাংলাদেশের নদীগুলোর মধ্যে ভারতে জন্ম প্রায় - ৫৫ টি নদীর।
৪০।রিখটার স্কেলে ১ মাত্রা বাড়া মানে ভূমিকম্পের শক্তি - ৩০ গুণ বেড়ে যাওয়া।
#১০ অধ্যায় (১-৪০)
১।কোনটি ভেক্টর রাশি - বল, ত্বরণ।
২।চলন্ত বাস থেমে গেলে বাসের যাত্রীরা সামনে ঝুঁকে যায় কেন - গতির জড়তার কারনে।
৩।নিউটনের প্রথম সূত্র হতে কোন বিষয়ে ধারণা পাওয়া যায় - জড়তা ও বল।
৪।নিউটনের ২য় সূত্র ক্ষেত্রে প্রযোজ্য - বল=ভর*ত্বরণ।
৫।শক্তিশালী নিউক্লিয় বল দূর্বল নিউক্লিয় বলের তুলনায় কতগুন বেশি -১০^১২।
৬।বলের একক - নিউটন।
গতিবিষয়ে সূত্র প্রদান করে - নিউটন।
৭।স্যুটকেসের নিচে চাকা লাগনো হয় কেন - ঘর্ষণ কমাতে।
ঘর্ষণ কমাতে ব্যবহান হয় - লুব্রিকেন্ট।
৮।গাছ হতে নিচে ফল পড়ে - মাধ্যাকর্ষণ বলের কারনে।
৯।বেগের পরিবর্তন হারকে বলে - ত্বরণ।
১০।নিউটনের কোন সূত্র ব্যবহার করে রকেট চলে - ৩য়।
১১।চৌম্বক বল কয়টি ধর্ম প্রদর্শন করে - ২টি।
১২।শক্তিশালী নিউক্লিয় বলের পাল্লা কেমন - অতিক্ষুদ্র।
১৩।পৃথিবীর ও একটি বস্তুর মধ্যে যে আকর্ষণ তাকে বলে - অভিকর্ষ।
১৪।লেপটন ও হাউন হচ্ছে -মৌল কনিকা।
১৫।নিউক্লিয়াসকে কেন্দ্র করে ঘোরে - ইলেকট্রন।
১৬।নিউটনের গতিসূত্র প্রকাশ হয় - ১৬৮৭।
১৭।নিউটন কয়টি বিষয়ে উপর সম্পর্ক স্থাপন করে - ৪টি।
মৌলিক বল - ৪টি।
১৮।জড়তা - ২ প্রকার।
১৯।হাঁটতে গেলে উচু নিচু জায়গায় হোঁচট খাই কেন - স্থিতি জড়তার জন্য।
২০।সময়ের সাথে বস্তুর অবস্থান পরিবর্তনকে বলে - গতি।
২১।ঝুরঝুর বালিতে হাঁটা যায় না কেন - বল প্রয়োগ হয় না তাই।
২২।যে বলের কারনে রকেট জ্বালানী নির্গত হওয়ার বিপরীত দিকে চলে - ক্রিয়া প্রতিক্রিয়া বলের কারনে।
২৩।ক্রিকেট বল ব্যাটের ওপর কোন বল ক্রিয়া করে - প্রতিক্রিয়া বল।
২৪।পদার্থের নিজস্ব অবস্থা বজায় রাখতে চাওয়ার ধর্মকে বলে - জড়তা।
পদার্থের জড়তা পরিমাপ হচ্ছে - ভর।
২৫।প্যারাসুট নিয়ে প্লেন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়লে কোন ঘর্ষণের কারনে নিচে নামতে পারে - প্রবাহী ঘর্ষণ।
২৬।ঘর্ষণ বল কয়টি বিষয়ে নির্ভর করে - ২টি।
২৭।তেল বা গ্রিজ তলগুলোকে কী করে - মসৃণ।
২৮।গাড়ির টায়ারে সুতোর ব্যবহার হয় - সড়ক আঁকরে ধরার জন্য।
২৯।কিসের কারনে আমরা বই খাতা ধরে রাখতে পারি - ঘর্ষণের কারনে।
৩০।চাঁদ পৃথিবীকে কেন্দ্র করে ঘুরে কেন- মাধ্যাকর্ষণ বলের জন্য।
৩১।যে পদার্থ চুম্বকে আকর্ষণ করে তাকে -চুম্বক পদার্থ বলে।
৩২।সকল পদার্থ - পরমানু দিয়ে গঠিত।
৩৩।।যা বস্তুর অবস্থান পরিবর্তন করতে চায় - বল।
৩৪।মাধ্যাকর্ষণ শক্তির তুলনায় তড়িৎ চৌম্বক বল কতগুণ বেশি শক্তিশালী - ১০^২০ গুন।
৩৫।নিউটনের প্রথম সূত্র - বাইরে থেকে কোন বল প্রয়োগ না করে স্থির বস্তু স্থিরই থাকবে এবং সমবেগে চলতে থাকা বস্তু সমবেগে চলতে থাকবে।
৩৬।নিউটনের ২য় সূত্র - বস্তুর ভরবেগের পরিবর্তনের হার প্রযুক্ত বলের সমানুপাতিক।
৩৭।নিউটনের ৩য় সূত্র - প্রত্যেক ক্রিয়া বলেরই একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া বল আছে।
৩৮।ভরের একক - কেজি।
৩৯।রাসায়নিক বিক্রিয়া সংঘটনের জন্য দায়ী - তাড়িৎ চৌম্বক বল।
৪০।বল নির্ভর করে - ত্বরণের উপর।
এতোদিন যারা সঙ্গে ছিলেন বা আছেন তাদেরকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।
অন্য কোন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের নোট প্রয়োজন হলে কমেন্টে জানাবেন।চেষ্টা করে দেখবো সাহায্য করতে পারি কি না!
সংগ্রহকরণ: 
সোহেল রানা।
বিবিএ(অনার্স), এমবিএ(মার্কেটিং)

কারেন্ট এফেয়ার্স এবং পত্রিকা থেকে সংগৃহীত ১৩৭টি গুরুত্বপূর্ণ সাম্প্রতিক MCQ প্রশ্নোত্তর

গত ০৪ মাসের কারেন্ট এফেয়ার্স এবং পত্রিকা থেকে সংগৃহীত ১৩৭টি গুরুত্বপূর্ণ সাম্প্রতিক MCQ প্রশ্নোত্তর ;
০১. বর্তমান বিশ্বের সেরা ধনী - অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজস।
০২. ২০১৮ সালের product of the year ঘোষনা করা হয়- ওষুধ শিল্পকে।
০৩. বাংলাদেশে 4G চালু হয়- ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮।
০৪. "পতাকা ৭১" ভাস্কর্যটির ভাস্কর - রুপম রায় (মুন্সিগঞ্জে)
০৫. দারিদ্র্যের হার সবচেয়ে কম- নারায়ণগঞ্জ জেলায়।
০৬. দেশের ২য় পারমানবিক বিদুৎ কেন্দ্র হবে- হিজলা, বরিশাল।
০৭. গ্যাস অনুসন্ধানে বাংলাদেশকে ভাগ করা হয়েছে- ২৩ ব্লকে।
০৮. ট্রারিফ কমিশন - বানিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন।
০৯. বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি ঋন পায়- IDA থেকে।
১০. দারিদ্র্যের হার সবচেয়ে বেশি- কুড়িগ্রাম জেলায়।
১১. মাহাথির মোহাম্মদের বর্তমান দলের নাম- পাকাতান হারাপান।
১২. ২০১৮ সালে নোবেল পুরষ্কার স্থগিত যে বিষয়ে - সাহিত্য।
১৩. ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং কিম জং উন এর বৈঠক হয় - ক্যাপেলা রিসোর্ট, সেন্টোসা দ্বীপ, সিঙ্গাপুর।
১৪. ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং পুতিনের মাঝে বৈঠক হয়- হেলসিংকি, ফিনল্যান্ড।
১৫. কমনওয়েলথের বর্তমান সদস্য - ৫৩ টি (সর্বশেষ গাম্বিয়া)
১৬- মাইকেল ওন্দাৎজে যে বইটির জন্য ম্যান বুকার পুরষ্কার পান- 'দ্য ইংলিশ পেশেন্ট "
১৭. টি টোয়েন্টি নারী বিশ্বকাপ ২০১৮ অনুষ্ঠিত হবে- ওয়েস্ট ইন্ডিজে।
১৮. সপ্তাহ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে- অস্ট্রেলিয়া (২০২০ সালে)
১৯. বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮ এর "ম্যান অফ দ্যা ফাইনাল "- অ্যান্তনি গ্রিজম্যান
২০. আন্তর্জাতিক নারী টি টোয়েন্টি ক্রিকেট বাংলাদেশের পক্ষে ১ম হ্যাট্রিক করেন- ফাহিমা খাতুন।
২১. বাংলাদেশ- ভারত মৈত্রী ভবন অবস্থিত - রাজশাহীতে।
২২. পদ্মা সেতুর বর্তমান দৃশ্যমান অংশ- ৭৫০ মিটার।
২৩. পরিত্যক্ত পলিথিন থেকে জ্বালানি তেল উৎপাদন পদ্ধতির উদ্ভাবক- তৌহিদুল ইসলাম।
২৪. দেশকে মাদকমুক্ত ঘোষণা করা হবে- ২০৪১ সালের মধ্যে।
২৫. নারী ক্ষমতায়নে দেশের প্রথম অনলাইন ভিত্তিক জব মার্কেট প্লেস- "দ্য টু আওয়ার জব ডটকম"।
২৬. অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৮ অনুযায়ী দেশের বর্তমান মাথাপিছু আয়- ১৭৫২ মা. ডলার।
২৭. সম্প্রতি ২১ শে ফেব্রুয়ারি জাতীয়ভাবে পালনের জন্য যে দেশ বিল পাস করেছে- অস্ট্রেলিয়া।
২৮. সংবিধানের ১৭তম সংশোধনীতে সংরক্ষিত আসনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে- ২৫ বছর।
২৯. রোহিঙ্গাদের উপর নির্মিত বাংলাদেশের স্বল্পদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র - A pair of Sandal.
৩০. বর্তমানে দেশে তফসিলিভুক্ত ব্যাংকের সংখ্যা - ৫৮ টি ( রাষ্ট্রীয় ৯টি)।
৩১. দেশের ফুলের রাজধানী বলা হয়- যশোরের গদখালীকে।
৩২. বর্তমানে দেশে মোট উৎপাদনরত গ্যাসক্ষেত্র- ২৭ টি।
৩৩. বঙ্গবন্ধুর জেল জীবনের উপর রচিত বইয়ের নাম- ৩০৫৩ দিন।
৩৪. দেশে বর্তমানে নদী বন্দর- ৩২ টি।
৩৫. বাংলাদেশ বিশ্বের কততম দেশ হিসেবে e-passport যুগে যাত্রা শুরু করে- ১১৯ তম।
৩৬. মাদক বিরোধী অভিযানের নাম ছিল- চলো যাই যুদ্ধে, মাদকের বিরুদ্ধে।
৩৭. বর্তমানে পাটের ব্যাগ ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক - ১৯ টি পণ্যে।
৩৮. বর্তমানে স্বর্ণ উৎপাদনে শীর্ষ দেশ- চীন।
৩৯. ইমরান খানের রাজনৈতিক দলের নাম- তেহরিক-ই-ইনসাফ।
৪০. অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী - স্কট মরিসন।
৪১. অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালে
র নতুন মহাসচিব - কুমি নাইডো।
৪২. আফ্রিকান দেশগুলোতে বেলুনের সাহায্যে ইন্টারনেট ছড়িয়ে দেয়ার প্রকল্পের নাম- " প্রজেক্ট লুন"।
৪৩. MNP (Mobile Number Portability) সর্বপ্রথম চালু হয় যে দেশে- সিঙ্গাপুর।
৪৪. OPEC এর বর্তমান সদস্য দেশ- ১৫ টি।
৪৫. কফি আনানের আত্মজীবনী - " Interventions: A life in war & Peace "।
৪৬. "মিন্দানাও দ্বীপ" অবস্থিত -ফিলিপাইনে।
৪৭. বিশ্বের ১ম দল হিসেবে ১ হাজার টেস্টের মাইলফলক স্পর্শ করে -ইংল্যান্ড।
৪৮. বর্তমান কমনওয়েলথ মহাসচিব - প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড।
৪৯. বাংলাদেশের ৮ম টেস্ট ভেন্যু হতে যাচ্ছে - সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম।
৫০. "Starry Sky-2" নামক হাইপারসনিক বিমানের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে - চীন।
৫১. "Parker Solar Probe " হচ্ছে - সূর্য অভিযানে নাসার প্রেরিত নভোযান।
৫২. ঐতিহাসিক "রোজ গার্ডেন " অবস্থিত - টিকাটুলি, ঢাকা।
৫৩. দেশের মোট গ্যাসক্ষেত্র - ২৭ টি (উৎপাদনরত- ১৯ টি)
৫৪. "রাজাধিরাজ রাজ্জাক" প্রামাণ্যচিত্রের নির্মাতা - শাইখ সিরাজ।
৫৫. উইজডন বর্ষসেরা তরুণ ক্রিকেটার ২০১৮ - কাগিসো রাবাদা (দঃ আফ্রিকা).।
৫৬. বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর পাসপোর্ট -জাপান ও সিঙ্গাপুরের ( ১৮৯ টি দেশে বিনা ভিসায় ভ্রমন করতে পারেন)।
৫৭. নরওয়ের বিশ্ববিখ্যাত জরিপকারী জাহাজ - ফ্রিডজফ ন্যানসেন।
৫৮. পাটের ব্যাগ ব্যবহার বাধ্যতামূলক - ১৯ টি পণ্যে।
৫৯. বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালানোর কারণে কেউ গুরুতর আহত বা নিহত হলে "সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮" অনুযায়ী সাজা - সর্বোচ্চ ৫ বছর কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ৫ লাখ জরিমানা বা উভয় দন্ড।
৬০. আওয়ামী মুসলিম লীগ (বর্তমান আওয়ামী লীগ) গঠিত হয় যেখানে- রোজ গার্ডেন, টিকাটুলি, ঢাকা (২৩ জুন, ১৯৪৯)।
৬১. পাকিস্তানের পার্লামেন্ট ভবনের নাম - মজলিস-ই- শূরা।
৬২. পাকিস্তানের ইতিহাসে ১ম অমুসলিম সংসদ সদস্য - মহেশ কুমার মালানি (পিপলস পার্টির)।
৬৩. সম্প্রতি "মহাকাশ বাহিনী " গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে - USA.
৬৪. বিশ্বের প্রথম ট্রিলিয়ন ডলারের পাবলিক কোম্পানি - "Apple Incorporated ".
৬৫. সপ্তম আইসিসি T20 বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে - অস্ট্রেলিয়ায়।
।।
৬৬. সম্প্রতি উদ্বোধনকৃত বাংলাদেশ বিমানের বোয়িং ড্রিমলাইনার উড়ো জাহাজটির নাম-- আকাশবীণা।
৬৭. জাতিসংঘ মানব উন্নয়ন সূচক-২০১৮ তে বাংলাদেশের অবস্থান-- ১৩৬ তম। (শীর্ষে নরওয়ে)
৬৮. আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস-- ৮ সেপ্টেম্বর।
৬৯. বাংলাদেশে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী মোট জনসংখ্যার -- ১.১০% ভাগ।
৭০. বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি ওষুধ রপ্তানি করে-- মিয়ানমারে।
৭১. ন্যাটোর বর্তমান সদস্য -- ২৯ টি (সর্বশেষ মন্টিনিগ্রো)
৭২. বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সুপার কম্পিউটারের নাম-- Summit, USA এর।
৭৩. বর্তমানে বীরাঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা -- ২৩১ জন।
৭৪. "তুম্রু" সীমান্তবর্তী অঞ্চলটি -- বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে।
৭৫. পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ যথাক্রমে -- ৬.১৫ কি.মি. এবং ১৮.১০ মি.।
৭৬. মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা তাদের নাগরিকত্ব হারায় -- ১৯৮২ সালে।
৭৭. ২০১৮-১৯ অর্থবছরে মোট জাতীয় বাজেট-- ৪,৬৪,৫৭৩ কোটি টাকা।
৭৮. ফলকেটিং ( Folketing) কোন দেশের আইনসভা-- ডেনমার্ক।
৭৯. ২০১৮ সালের বিশ্ব পরিবেশ দিবসের প্রতিপাদ্য -- "প্লাস্টিক দূষণকে পরাজিত করি"।
৮০. দেশের প্রথম নারী প্রোগ্রামার-- শাহেদা মুস্তাফিজ।
৮১. জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা দিবস-- ০১ ডিসেম্বর।
৮২. বাংলাদেশে সর্বপ্রথম মোবাইল ব্যাংকিং চালু করে- ডাচ-বাংলা ব্যাংক।
৮৩. BSEC এর চেয়ারম্যানের মেয়াদকাল-- ৪ বছর
৮৪. মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডের মাসকটের নাম-- বাগড্রয়েড (Bugdroid)।
৮৫.সরকারি চাকুরিতে কোটা পদ্ধতি চালু হয়-- ৫ নভেম্বর, ১৯৭২।
৮৬.যুক্তরাজ্যের ব্রেক্সিট কার্যকর হবে-- ২০১৯ সালের ১৯ শে মার্চ।
৮৭. "Daily Telegraph" পত্রিকাটি-- যুক্তরাজ্যের।
৮৮. বাংলাদেশে "Agent Banking" চালু করে সর্বপ্রথম-- Bank Asia.
৮৯. " Agent Banking" এ শীর্ষে-- Dutch-Bangla Bank Limited.
৯০. দেশে "Agent Banking" এর কার্যক্রম শুরু হয়-- ২০১৩ সালে।
৯১. "বদ্বীপ - পরিকল্পনা ২১০০" প্রণয়ন করেছে-- পরিকল্পনা কমিশনের অর্থনীতি বিভাগ।
৯২. "বদ্বীপ পরিকল্পনা" এর ইংরেজি নাম-- Delta Plan.
৯৩. "বদ্বীপ পরিকল্পনা" প্রণয়ন করা হয়েছে যে দেশের ডেল্টা প্লানের আলোকে-- নেদারল্যান্ডস।
৯৪. "বদ্বীপ পরিকল্পনা" এর বৃহৎ পরিসরে মোট লক্ষ্য-- ০৩ টি (( ২০৩০ সালের মধ্যে চরম দারিদ্র্যতা দূর করা; ২০৩০ সালের মধ্যে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত এবং ২০৪১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধ দেশের মর্যাদা অর্জন))।
৯৫."বদ্বীপ পরিকল্পনা" এর মেয়াদ-- ১০০ বছর।
৯৬. "বঙ্গবন্ধু ০১" এর পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু হয়-- ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮।
৯৭. FAO এর তথ্যনুযায়ী, ধান উৎপাদনে বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্বে-- ৪র্থ।
৯৮. FAO এর তথ্যনুযায়ী, মাছ উৎপাদনে বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্বে-- ৩য়।
৯৯. "Mobile Banking" এর মাধ্যমে দেশে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হচ্ছে- প্রায় ৯৯৪ কোটি টাকা।
১০০. বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু-- ৭২.৮০ বছর।
১০১. UADP মানব উন্নয়ন প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে বর্তমানে স্বাক্ষরতার হার-- ৭২.৮০%।
১০২. দেশের ১ম ৬ লেনের Express Highway-- ঢাকা টু ফরিদপুরের ভাঙ্গা।
১০৩. "সড়ক পরিবহন বিল- ২০১৮" সংসদে পাস হয়-- ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮।
১০৪.দেশের ১ম শতভাগ স্যানিটেশনের আওতাধীন জেলা-- কুমিল্লা।
১০৫. "১৬২৬৩" নম্বরে কল করলে যে সেবা পাওয়া যাবে-- Ambulance.
১০৬. "২০১৮-১৯" অর্থবছরে জাতীয় বাজেটের পরিমাণ-- ৪,৬৪,৫৭৩ কোটি টাকা।
১০৭. বিমসটেক সম্মেলন ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়-- কাঠমুন্ডে।
১০৮. "বদ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০" যার সাথে যুক্ত-- জলবায়ু পরিবর্তন।
১০৯. Ground Zero অবস্থিত-- New York.
১১০. "ব-দ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০" অনুমোদন দেয়া হয়-- ০৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮।
১১১. "ব-দ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০" এর অনুমোদন প্রদান করে-- জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (NEC).
১১২. " ব-দ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০" এর ১ম পর্যায়ের মোট প্রকল্প-- ৮০ টি।
১১৩. OPEC এর বর্তমান সদস্য দেশ-- ১৫ টি (সর্বশেষ কঙ্গো প্রজাতন্ত্র)।
১১৪. অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৮ অনুযায়ী দেশে পুরুষ - মহিলার অনুপাত-- ১০০.৩ : ১০০।
১১৫. ১২তম বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে-- England.
১১৬. বিশ্বের প্রথম হাইড্রোজেন চালিত ট্রেন চালু হয়েছে যে দেশে-- Germany.
১১৭. "Interventions: A Life in war and Peace "-- কফি আনানের লেখা আত্মজীবনী।
১১৮. কফি আনান শান্তিতে নোবেল পুরুষ্কার পান-- ২০০১ সালে।
১১৯. AIIB এর বর্তমান সদস্য দেশ-- ৬৮ টি (Asian Infrastructure Investment Bank)
১২০. পরিসংখ্যান ব্যুরো ২০১৭-১৮ এর তথ্যমতে:
=> বর্তমানে দেশের জনসংখ্যা ১৬৩.৬৫ মিলিয়ন
=> মাথাপিছু আয় ১৭৫১ মা. ডলার
(অর্থনৈতিক সমীক্ষা অনুযায়ী ১৭৫২)
=> জিডিপির প্রবৃত্তির হার ৭.৮৬%
১২১. " বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ০১" উৎক্ষেপণ করা হয়-- ১১ মে, ২০১৮।
১২২. "বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ০১" ব্যবহার করে পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু-- ০৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮।
১২৩. "বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ০১" উৎক্ষেপণ করা হয়-- যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেপ ক্যানাভেরাল হতে।
১২৪. স্যাটেলাইট সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্বে-- ৫৭ তম।
১২৫. "বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ০১" এর বাণিজ্যিক কার্যক্রমের পরামর্শক হিসেবে নিযুক্ত হতে যাচ্ছে-- থাইল্যান্ডের স্যাটেলাইট কোম্পানি "থাইকম"।
১২৬. বর্তমানে দেশে পোশাক শিল্পে জড়িত শ্রমিক সংখ্যা-- প্রায় ৩৬ লক্ষ।
১২৭. ২০১৮ সালের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার-- লুকা মডরিচ।
১২৮. বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি তালাক হয় যে বিভাগে-- বরিশাল।
১২৯. " জাম্বুরি পার্ক " অবস্থিত-- আগ্রাবাদ, চট্টগ্রাম।
১৩০. আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস-- ০৮ সেপ্টেম্বর।
১৩১. বঙ্গবন্ধুর লেখা বইসমূহ--
=> অসমাপ্ত আত্মজীবনী
=> কারাগারের রোজনামচা
=> নয়া চীন ভ্রমন
=> আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা
=> স্মৃতিকথা
১৩২. বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভাস্কর্য-- Statue of Unity (গুজরাট, ভারত)।
১৩৩. ৫ম বিমসটেক সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হবে-- Sri lanka.
১৩৪. বর্তমানে শীর্ষ তেল উৎপাদনকারী দেশ-- USA.
১৩৫. বর্তমানে দেশে স্বাক্ষরতার হার-- ৭২.৯% (প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী) অথবা ৭২.৮% (UNDP).
১৩৬. "তিনাম ঝর্না " অবস্থিত-- আলীকদম, বান্দরবান।
১৩৭. দেশের ১ম "Y" আকৃতির সেতু অবস্থিত-- কুমিল্লার হোমনা উপজেলা এবং বিবাড়িয়ার বান্ঞ্জারামপুর উপজেলার তিতাস ১৩৭. দেশের ১ম "Y" আকৃতির সেতু অবস্থিত-- কুমিল্লার হোমনা উপজেলা এবং বিবাড়িয়ার বান্ঞ্জারামপুর উপজেলার।

৪০তম বিসিএস প্রিলিতে Clause অাসলে ১ নাম্বার মিস নাই

৪০তম বিসিএস প্রিলিতে Clause অাসলে ১ নাম্বার মিস নাই!
-------------------------
এই কঠিন Clause কিভাবে শর্টকাট পরীক্ষা হলে বের করবেন এই বিষয়ে দু' একটি গোপন কথা বলি। Clause অাছে মোট=৩ টা। 1) Noun Clause 2) Adjective Clause 3) Adverbial Clause। পরীক্ষায় অপশন থাকে ৪ টা করে। অর্থাৎ ক, খ, গ,ঘ। তাহলে ৪ টি অপশনে মাত্র তিনটি Clause বসবে বাকি যে অপশন থাকবে তা বাদ দিবেন। এই একটি অপশন বাদ দেওয়ার কারণে অাপনার কাজ ৫০% হয়ে গেছে। এবার কাজেই কথায় অাসি। কোন Clause কোন উপায়ে শর্টকাট বের করবেন।
(1) Noun Clause: এই Clause-এ Underline এর বরাবর It বসিয়ে যদি বাক্যটি পূর্ণ হয় তবে বুঝবেন এটি অবশ্যই Noun Clause। অাপনাকে Verb এর অাগে, পরে, পিছনে, preposition এর পরে কিংবা Appositive হিসেবে এই ৬টি জায়গায় Noun Clause বসে এই লজিক শিখতে হবে না অার। শুধু It বসিয়ে বাক্য পূর্ণ হলেই Noun Clause। যেমন-
(১) (That he is a criminal) is known to all.
(২) We don't know (what he is talking about.)
এখানে (১) ও (২) নং এ ব্রাকেট এর পরিবর্তে It বসালে বাক্য পূর্ণ হবে অর্থাৎ Noun Clause। যেমন- (1) It is known to all. (2) We don't know it.
(2) Adjective Clause: Underlined অংশটি হাতের অাঙ্গুল দিয়ে ঢেকে দিয়ে যদি বাক্য পূর্ণ তখন বুঝবেন অবশ্যই Adjective Clause। যেমন--
(১) The boy (who doesn't know to manner) is my brother.
এখানে Underline অংশটি একপাশে রেখে দিলে হয়=The boy is my brother। বিশ্বাস নাহলে বই খুলে নিজে দেখুন!!
(3) Adverb Clause: এটি চেনা অত্যন্ত সোজা। কারণ তিনটি অপশন থেকে It দিয়ে বা অাঙ্গুলে চেপে ধরলেও Noun Clause, Adjective Clause কোনটিই না হলে ধরে নিবেন ১০০% Clause টি Adverbial Clause।
----------
ঊর্মি,চৌধুরী।
বি:দ্র: নিজে শিখুন অন্যকে শিখান।