এইচএসসি ব্যাচ ২০১৯ ইংরেজি প্রস্তুতি hsc 2019 english preparations

এইচএসসি ব্যাচ ২০১৯
ইংরেজি প্রস্তুতি -

ইংরেজি এমন বিষয় যেটার নাম শুনলেই অধিকাংশ স্টুডেন্টের রাতের ঘুম হারাম হয়ে যায়। ইংরেজি! আল্লাহ এটা তো আমি কিছু পারি না! এটা দেখলেই ভয় লাগে!! এটাতে আমি ফেইল।  ইত্যাদি ইত্যাদি চিন্তা ভাবনা! কিন্তু আসলে ইংরেজিকে এভাবে নেওয়ার কিছু নেই ভাইয়া। ইংরেজিও খুব সহজ! ইংরেজিকে সবাই ভয় পেলেও ইংরেজিতে মার্কস উঠানো অনেক বেশি সহজ! কীভাবে সহজ? কেনোনা ইংরেজিতে নাম্বারগুলাও গনিতের মত। এখানে উত্তর কারেক্ট হলেই ফুল নাম্বার।মচকে যেমন চারটা অপশন থাকে এরকম ইংরেজির কিছু কিছু আইটেমে থাকে!  ইংরেজিতে আরও সহজে মার্কস তোলা যায়! এখন অনেকে বলবে ভাইয়া মেবি মজা করতেছে! না ভাইয়া মজা করছি না! 
তোমাদের যদি বলি,ভাইয়া ইংরেজি এমন একটা সাবজেক্ট যেটার উত্তর প্রশ্নতেই দেওয়া থাকে! এটা নিয়ে এত্ত ভয় পাবার কিছু নেই।মাথা ঠান্ডা করে মাত্র ৫-৬দিন প্রিপারেশন নিবে। ইংরেজিতে ইনশাআল্লাহ এ+ আসবে।  এখন প্রশ্ন হচ্ছে কী পড়বো? কীভাবে পড়বো? এত কিছু পড়ার তো সময় নেই। তোমাদের বলি এত হতাশ হবার কিছু নেই। তোমাদেরকে  ইংরেজিতে কিছু কিছু গল্প পড়তে হবে। যেগুলা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ! এখন প্রশ্ন হচ্ছে এই গল্পগুলা কীভাবে পড়বো? হ্যাঁ,এগুলা সেইম টু সেইম বাংলা যেভাবে পড় ঠিক সে মতই পড়তে হবে। ইংরেজিতে ভালো নাম্বার পাবার প্রধান শর্তই হচ্ছে গল্পগুলা ভালোভাবে জানা। যেমন:তোমাদের যদি প্রশ্ন করা হয় অপরিচিতা গল্পে অনুপমের বয়স কত ছিল? সবাই চোখ বন্ধ করে বলে দিতে পারবা! ইংরেজির ব্যাপারটাও সেইম! বাংলার মত ইংরেজির গল্পগুলাও পড়ে নিতে হবে। ইংরেজিতে তুমি হুবহু প্রশ্ন কমন পাবা না। সো শুধু শুধু অমুক কলেজের প্রশ্ন পড়ে গেলেই কমন চলে আসবে এসব চিন্তা মাথায় না আনাই ভালো। এজন্য সব থেকে বেষ্ট উপায় হচ্ছে ইংরেজির গল্পগুলা খুব ভালোভাবে জানা। যে ভালোভাবে গল্পগুলা জানবে সে চোখ বন্ধ করে ইংরেজিতে ৮০+ তুলে নিতে পারবে। ইংরেজির কিছু ইম্পরট্যান্ট গল্পগুলা দিচ্ছি এগুলা একটু বেশি করে পড়ে যেতে হবে। মনে রাখতে হবে এই গল্পগুলা  ভালোভাবে পড়লে তুমি part-A থেকে ৬০ নাম্বার পাক্কা পেয়ে যাচ্ছো! কেনোনা এখান থেকে একটা গল্প আসবে প্যাসেজে,একটা গল্প রিয়ারেঞ্জে,দুইটা গল্প দুইটা শুন্যস্থানে এরকম গল্পগুলা কোনো না কোনো অংশে আসার সম্ভাবনাই বেশি।
গল্পগুলা হচ্ছে:
For passage :
*Nelson Mendela,Diaspora,kuakata,Shipli,Folk music,Conclift, A craft work,Hercules was son,Accroding to..এই গল্পগুলা বাংলার মত পড়বা!যেমন :আগে জাস্ট রিডিং দিয়ে একবার পড়ে যাবা তারপর এক লাইন পড়বা আর ওই লাইনের বাংলা অর্থ পড়ে নিবা এভাবে গল্পগুলা জাস্ট রিডিং দিয়ে পড়বা। খুব বেশি সময় লাগবে না। রিডিং পড়ার পর তুমি জাস্ট প্র‍্যাক্টিস করার জন্য এই গল্পগুলা যে যে কলেজে আসছে যেকোনো এক-দুইটা কলেজের প্রশ্ন সলভ করে নিবা। এনাফ!
রিয়ারেঞ্জের জন্য স্পেশালী কয়েকটা গল্প পড়বা।
যেমন:Mother Teresa,Robindronath Tagore,Taimur,Thomas Alva edison,Begum Rokeya এই পাঁচটা খুবই ইম্পরট্যান্ট। এ কয়েকটা পড়লেই আল্লাহ রহমতে হয়ে যাবে। আর যদি এগুলার বাইরে থেকে আসে তাহলে প্যাসেজের জন্য যেগুলা দিয়েছি ওখান থেকে আসার সম্ভাবনাই বেশি।
 আর ওখান থেকে আসলে তো চোখ বন্ধ করে পারবা। কজ তোমার গল্পটা জানা।
ভাইয়া,ইংরেজির জন্য এত্ত টেনশন করো না। 
এবার আসি আইটেম নিয়ে: 
১ নং: এখানে ১৫ নাম্বার।মচক+শুন্যস্থান।এই ১৫ নাম্বারের উত্তর প্যাসেজে থাকবে। মন দিয়ে জাস্ট প্যাসেজটা পড়বা। ১৫ এর মধ্যে ১৫ পেয়ে যাবা। 
২ নং: এখানে পাক্কা ১০ নং। শুধু প্যাসেজেটা ভালোভাবে পড়বা! প্যাসেজের মূলভাব কি! সেটা বুঝে নেওয়ার পর প্রথম লাইন প্রশ্নে দেওয়া থাকবে। ওই লাইন দেখলে+প্যাসেজটা দেখলেই বুঝবা পরের পাঁচটা শব্দ/লাইন পেরে যাবা। জাস্ট মাথা ঠান্ডা রেখে প্যাসেজটা পড়বা।
৩ নং: এখানেওও ১০ নাম্বার।Summarize দিতে হবে। এখানেও প্যাসেজ থাকবে। প্যাসেজ থেকে উত্তর করতে হবে। প্যাসেজের মূলভাব অবশ্যই বুঝে নিবা। তাহলেই এটা সহজে পারা যাবে।
৪ নং: এখানে ৫ নাম্বার থাকবে। এটা সব থেকে সহজ। উপরে উত্তর দেওয়া থাকবে। তোমরা জাস্ট লাইন বাই লাইন পড়বা। বাংলা অর্থটা বুঝলেই এখানে সবগুলা কারেক্ট করা সম্ভব।
৫ নং: এখানে ১০ নং। এখানেও শুন্যস্থান থাকবে। যেকোনো একটা প্যাসেজে শুন্যস্থান আকারে দিবে। প্যাসেজ পড়া থাকলেই পারবে।
৬ নং: এখানেও ১০ নাম্বার। এটা মূলত রিয়ারেঞ্জ। এখানে তোমার বইয়ের যেকোনো একটা প্যাসেজ উল্টাপাল্টা ভাবে দিবে। তুমি জাস্ট সাজিয়ে নিবা। এটা কমন না আসলেও লাইনগুলা জাস্ট মন দিয়ে পড়বা।সিরিয়াল বাই লাইনগুলা কি আসবে দেখলেই বুঝবা।
এই হচ্ছে ৬০ নাম্বার! রিটেনে কি কি আসে তোমরা সেটা জানো। রিটেন নিয়ে ভেবো না। যে প্যাসেজের এই ৬০ নাম্বারে ভালো করতে পারবে তাকে স্যারে নিজে থেকে ৮০ নাম্বার করে দেওয়ার জন্য পাগল হয়ে যাবে। রিটেন সাইড তোমরা লিখে দিবা। বাদ দিবা না কোনোটা। যে এই ৬০ নাম্বারে ভালো করবে সে চোখ বন্ধ করে এ+ পাবে।
এখন ভাইয়ারা তোমরা খেয়াল করছো এই ৬০ নাম্বার কোথায় থেকে আসে? প্রত্যেকটা প্যাসেজের সাথে কানেক্টেড! তোমার কাজ হচ্ছে প্যাসেজগুলা বাংলা অর্থসহ ভালোভাবে পড়া! আর কিচ্ছু পড়া লাগবে না। প্যাসেজ পড়ার পর ওই প্যাসেজের প্রশ্ন যে যে কলেকে আসছে সেখান থেকে প্র‍্যাক্টিস করবা। দেখবা তুমি সবই পারতেছো। সো,প্লিজ! বাংলা প্যাসেজের মত এই প্যাসেজগুলা পড়ে নাও। ইংলিশকেও বাংলা ধরে নাও। ইংলিশ নিয়ে ভয় পাবার কিচ্ছু নেই!! ইংলিশে দেখবা অনেকে ৯০+ নাম্বার পায় আবার অনেকে ৩৩ নাম্বারও পায় না! একারনে সিস্টেম জানতে হবে।
ইংলিশের ম্যাক্সিমাম উত্তর প্রশ্নতেই দেওয়া থাকে। প্রশ্ন কমন না আসলেও মাথা ঠান্ডা করে বার বার প্যাসেজগুলা পড়বা। দেখবা প্যাসেজের কোনো একটা জায়গা থেকেই তোমার উত্তর বের হয়ে আসছে। ট্রাস্ট মি! এত্ত ভয় পাবার কিছু নেই। মাথা ঠান্ডা করে প্যাসেজগুলা পড়ো আর প্র‍্যাক্টিস করতে থাকো এই চারটা মাস। আর ইংলিশের মার্কস গনিতের মত। হলে একদম ফুল নাম্বার দিবে।তাই টেনশন না করে পড়তে থাকো। এক্সাম ভালো হবেই। ইনশাআল্লাহ।
ভালোভাবে পড়তে থাকো।
#collected