USA-কে যুক্তরাষ্ট্র কিন্তু UK-কে যুক্তরাজ্য বলে কেন?


****************************************************
আমেরিকায় ৫১ টি রাজ্য (৫০+১) থাকলেও তাকে আমরা যুক্তরাষ্ট্র বলি কেন? আর ইংল্যান্ডকে যুক্তরাজ্য বলি কেন?
যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্য, দুটো নামের মধ্যেই এদের প্রকৃত অর্থ লুকিয়ে রয়েছে।
"রাষ্ট্র" হলো এমন একটি অঞ্চল যা অধিবাসীদের দ্বারা স্ব-শাসিত এবং যারা নিজেদেরকে সম্পূর্ণরূপে সনাক্ত করতে পারে। আমেরিকা একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় দেশ বা ফেডারেল কান্ট্রি। যুক্তরাষ্ট্র হল এক প্রকার গণতন্ত্র যেখানে কেন্দ্রীয় সরকার থাকা সত্ত্বেও স্বায়ত্তশাসনের দ্বারা পরিচালিত প্রাদেশিক সরকার থাকে। প্রদেশগুলি এক একটি রাষ্ট্র যারা বৃহত্তর স্বার্থের জন্য যুক্তরাষ্ট্র গঠন করেছে। আমেরিকা ব্যতীত ভারত, জার্মানি, রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রের উদাহরণ ‌।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হলো একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতন্ত্র যা ৫০টি রাজ্য দ্বারা গঠিত, যা একসঙ্গে "মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র", অথবা "যুক্তরাষ্ট্র" নামে পরিচিত। ওয়াশিংটন ডি.সি.-তে ভিত্তিক ফেডারেল সরকারের অধীনে যুক্তরাষ্ট্র একত্রিত, এবং, এই রাষ্ট্রের কোনও "রাজা" বা "রানী" নেই।
"রাজ্য" হলো এমন একটি সাংবিধানিক সরকার, যেখানে অধিবাসীরা তাদের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য একজন রাজা বা রানীকে স্বীকৃতি দেয়, যারা কোনও নির্দিষ্ট পূর্বপুরুষের বংশ বা পরিবার থেকে থাকেন। তাঁরা আজীবনের জন্য মনোনীত হবেন ঠিকই, কিন্তু তাদের কাছে সম্পূর্ণ ক্ষমতা থাকতে পারবে না।
গ্রেট ব্রিটেন একটি রাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র। রাষ্ট্রের সাংবিধানিক প্রধান রানী। তবে কার্যনির্বাহী প্রধান প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু নিয়মতান্ত্রিক রাজতন্ত্র থাকার জন্য ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড এই চারটি প্রদেশে স্বায়ত্তশাসন নেই, এরা সরাসরি কেন্দ্রের অধীন।
যুক্তরাজ্য, যা "ব্রিটেন" নামেও পরিচিত, হলো চারটি দেশের ইউনিয়ন — ইংল্যান্ড, ওয়েলস, স্কটল্যান্ড এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড। যুক্তরাজ্যের প্রথম তিনটি দেশ — ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড এবং ওয়েলস, গ্রেট ব্রিটেন নামের দ্বীপটি তৈরি করে; এবং চতুর্থটি (উত্তর আয়ারল্যান্ড) হলো আয়ারল্যান্ড দ্বীপের একটি অংশ। আয়ারল্যান্ডের বাকি অংশটি হলো আলাদা একটি দেশ, যা "আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্র" নামে পরিচিত, এবং এটি যুক্তরাজ্যের অংশ নয়।
এই চারটি ব্রিটিশ দেশ "একক রাজ্য" হিসাবে একীভূত হয়, এবং তৎকালীন ব্রিটিশ রাজা বা রানীকে সেখানকার 'সরকারী প্রধান' হিসেবে মানা হয়। (রাজ্যের বর্তমান প্রধান হলেন রানী এলিজাবেথ দ্বিতীয়।)
কিন্তু রাজনৈতিকভাবে, ব্রিটিশ শাসক যুক্তরাজ্যকে শাসন করে না। তার পরিবর্তে, যুক্তরাজ্য হলো একটি সংসদীয় গণতন্ত্র, যার সরকার এবং সংসদ লন্ডনে অবস্থিত।